artk
৩ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ১১:০৮ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

ম্যারাথনে দৌড়ানো কি শরীরের জন্য খারাপ?

স্পোর্টস ডেস্ক | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১১২৮ ঘণ্টা, রোববার ২২ এপ্রিল ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১১৩১ ঘণ্টা, রোববার ২২ এপ্রিল ২০১৮


ম্যারাথনে দৌড়ানো কি শরীরের জন্য খারাপ? - খেলা

আজই লন্ডন ম্যারাথনে দৌড়বেন অন্তত ৪০ হাজার মানুষ। এর আগে লন্ডন ম্যারাথনে অংশ নিয়ে প্রায় প্রতিবছরই অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে অসুস্থ হওয়ার খবর পাওয়া যায়। কখনো শোনা যায় মারা যাওয়ার খবরও।

প্রশ্ন হলো, ম্যারাথনে দৌড়ানো কি শরীরে জন্য ভালোর চেয়ে খারাপ বেশি করে?

লিভারপুল জন মুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রীড়া বিষয়ক বিজ্ঞানী ড. মার্ক লেইক বলছেন, ম্যারাথন দৌড়ানো একটি বিরাট শারীরিক চ্যালেঞ্জ। এর ফলে শরীরের হাড়, মাসলস, লিগামেন্ট এবং ধমনীর ওপর ব্যাপক চাপ সৃষ্টি করে। এমনকি যারা রোজ দৌড়ান, তাদেরও এসব প্রত্যঙ্গে যেকোনো আঘাত সারতে সময় লাগে।

এজন্য শরীরের দীর্ঘ প্রস্তুতি প্রয়োজন বলে জানান ড. লেইক।

তবে ড. লেইক এমন মানুষের জন্য যাদের দৌড়ানো বা ম্যারাথনে অংশ নেয়াকে ঝুঁকিপূর্ণ মনে করেন, যাদের ওজন অতিরিক্ত বেশি ও শারীরিকভাবে সমর্থ নন, আঘাতের পূর্ব রেকর্ড আছে, শরীরের গঠনে অসামঞ্জস্য আছে, যেমন এক পা আরেক পায়ের চেয়ে ছোট।

ড. লেইক মনে করেন, কোনোরকম পূর্ব প্রস্তুতি ছাড়া ম্যারাথনে অংশ নেয়া বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। এমনকি স্থূলতা কিংবা হৃদরোগের চাইতেও একে বেশি বিপজ্জনক মনে করেন তিনি।

তবে, যদি হাতে সময় নিয়ে কেউ যথাযথ প্রস্তুতি নিয়ে ম্যারাথনে অংশ নিতে চান, তাহলে কোনো সমস্যা তৈরি হবার সম্ভাবনা নেই।

ড. লেইক মনে করেন, এর ফলে শরীর প্রস্তুত হয় একটি চ্যালেঞ্জ গ্রহণের জন্য।

এজন্য তিনি হার ও মাসলের পাশাপাশি হৃদরোগের আগাম খোঁজখবর নেয়ার পরামর্শ দেন।

হাইড্রেটেড থাকতে হবে
এ সময়ে আবহাওয়া গরম এবং বাতাসে জলীয় আর্দ্রতার পরিমাণ বেশি থাকে। ফলে এ সময়ে ম্যারাথন দৌড়ানো বেশ কঠিন।

কারণ এখন অনেক ঘাম হবে।

ড. লেইক বলছেন, ম্যারাথনে দৌড়ে একজন মানুষের চার লিটার পর্যন্ত ঘাম হতে পারে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই তাদের শরীর পানিশূন্য হয়ে পড়বে। যে কারণে শরীরকে এ সময় পানি এবং তরল জাতীয় খাবার পানীয় গ্রহণ করতে হবে।

তবে, সেজন্য ম্যারাথন রুটে সকল মোড়ে থেমে পানি না খাবারই পরামর্শ দেন ড. লেইক।

প্রথমবারের মত যারা ম্যারাথনে দৌড়বেন, তাদের জন্য কিছু টিপস-

ম্যারাথনে দৌড়ানোর সিদ্ধান্ত নেবার পর চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে
অন্তত চার থেকে ছয় মাস প্রস্তুতি নেবার জন্য সময় রাখা উচিত
সপ্তাহে তিন থেকে পাঁচদিন দৌড়াতে হবে এবং প্রতিবার আগের চেয়ে সময় বাড়াতে হবে
প্রস্তুতির সময় যথাযথ বিশ্রাম এবং আঘাত সারার সময় দিতে হবে
ম্যারাথনের সপ্তাহে প্রচার কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার খেতে হবে, যাতে শরীর সেটা শক্তি হিসবে ব্যবহার করতে পারে। বিবিসি।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এফএ

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত