artk
১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শনিবার ২৬ মে ২০১৮, ১০:২৭ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

অধ্যক্ষের পর এবার ব্যবসায়ীকে পেটালেন ছাত্রলীগ নেতা রনি (ভিডিও)

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৭২৪ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ১৯ এপ্রিল ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ২০৪৮ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ১৯ এপ্রিল ২০১৮


অধ্যক্ষের পর এবার ব্যবসায়ীকে পেটালেন ছাত্রলীগ নেতা রনি (ভিডিও) - রাজনীতি

অধ্যক্ষকে পেটানোর কেলেঙ্কারির রেশ কাটতে না কাটতেই প্রকাশ পেল চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনির আরেক কেলেঙ্কারি। এবার তিনি পিটিয়েছেন চট্টগ্রামের এক কোচিং ব্যবসায়ীকে।

ইতোমধ্যে বিষয়টি জানিয়ে কোচিং মালিক রাশেদ মিয়া পাঁচলাইশ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ঘটনারও সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রাম নগরীর জিইসি মোড় এলাকার ইউনিএইড কোচিং সেন্টারের অফিস কক্ষের প্রায় ৬ মিনিটের এই সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, প্রথমে ইউনিএইড কোচিং সেন্টারের মালিক রাশেদ মিয়াকে আঙুল তুলে শাসিয়ে টেবিল চাপড়াচ্ছেন রনি।

এক পর্যায়ে রাশেদের গালে থাপ্পড় মারতে দেখা যায় রনিকে। পরে চুল ধরে টানা-হেঁচড়া করে রাশেদের গালে কয়েকবার থাপ্পড় মারেন তিনি।

এর মধ্যে চলতে থাকে তার ‘শাসন’। এভাবে প্রায় আড়াই মিনিট চলার পর রুম ছেড়ে বেরিয়ে যান রনি। কয়েক মুহূর্ত পরই আবারো ফিরে এসে গালমন্দ করতে থাকেন। এই মুহূর্তে তাকে দীর্ঘ সময় কারো সঙ্গে ফোনালাপে ব্যস্ত থাকতে দেখা যায়।

ঘটনার শেষের দিকে সিগারেট ধরান রনি। তারপর আবার আঙুল উচিয়ে শাসাতে থাকেন। এক পর্যায়ে আবার ওই ব্যবসায়ীর গালে চড় মারেন এবং গলা টিপে ধরেন।

পুরো ঘটনার সময় কোচিং মালিক রাশেদকে হাতজোড় করে চেয়ারে বসে থাকতে দেখা গেছে।

এঘটনায় নুরুল আজিম রনির বিরুদ্ধে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার নগরের পাঁচলাইশ থানায় নুরুল আজিমসহ ছাত্রলীগের আরেক কর্মীর নাম উল্লেখ করে অভিযোগটি করেন কোচিং সেন্টারের পরিচালক রাশেদ মিয়া। অভিযোগে অজ্ঞাতপরিচয় আরও সাত থেকে আটজন জড়িত বলে উল্লেখ করা হয়।

বৃহস্পতিবার পাঁচলাইশ থানায় দেয়া অভিযোগে বলা হয়, নুরুল আজিম ইউনিভার্সিটি অ্যাডমিশন কোচিং সেন্টারে প্রায়ই আসা-যাওয়া করতেন। ১৭ ফেব্রুয়ারি জিইসি মোড়ে ওই কোচিং সেন্টারে গিয়ে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন তিনি। না দিলে মেরে ফেলার হুমকি দেন। এরপর ১৩ এপ্রিল নগরের মুরাদপুরের মোহাম্মদপুর এলাকায় রাশেদকে একা পেয়ে মারধর করেন নুরুল আজিম ও ছাত্রলীগ কর্মী নোমান চৌধুরী। এ সময় তারা ২০ লাখ টাকা চাঁদা চান। টাকা নেই জানানো হলে নুরুল আজিমের নির্দেশে নোমান চৌধুরী সুগন্ধা আবাসিক এলাকার বাসায় গিয়ে রাশেদের স্ত্রীর পাসপোর্টসহ ৩৫ হাজার টাকা নিয়ে যান। বাকি টাকা না দিলে মেরে ফেলার হুমকি দেন।

এসব অভিযোগ অস্বীকার করে নুরুল আজিম বলেন, অভিযোগকারী রাশেদ তার ব্যবসায়িক অংশীদার। তাকে ব্যবসা করার জন্য সাড়ে নয় লাখ টাকা দিয়েছেন। এই পাওনা টাকা চাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে রাশেদ কাহিনি সাজিয়েছেন। পাওনা টাকার জন্য সেদিন গিয়েছিলেন।

তবে মামলার বাদী রাশেদ মিয়া গণমাধ্যমকে বলেন, নুরুল আজিম তার কোনো ব্যবসায়িক অংশীদার নন। চাঁদার জন্যই তাকে নুরুল আজিম মারধর করেছেন। প্রমাণ হিসেবে তার কাছে এ ঘটনার ভিডিও ফুটেজ আছে।

পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহিউদ্দিন মাহমুদ বৃহস্পতিবার বিকেলে বলেন, ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবির জন্য থানায় একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। এখনো মামলা হিসেবে নেয়া হয়নি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

এর আগে ৪ এপ্রিল চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ জাহেদ খান বাদী হয়ে নুরুল আজিমসহ ছাত্রলীগের সাত নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে নগরের চকবাজার থানায় ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগে মামলা করেছিলেন। প্রবেশপত্রের সঙ্গে উন্নয়ন ফি বাবদ পাঁচ হাজার টাকা নেয়াকে কেন্দ্র করে গত ২৯ মার্চ বিজ্ঞান কলেজে নুরুল আজিমের নেতৃত্বে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করেন। সেদিন কলেজ কর্তৃপক্ষ ৩১ মার্চ বাড়তি ফি ফেরত দেয়ার আশ্বাস দেয়। এরপর কর্তৃপক্ষ টাকা ফেরত দিতে গড়িমসি করায় ৩১ মার্চ দুপুরে নুরুল আজিম আবারও ওই কলেজে যান। তখন টাকা ফেরত দেয়া নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার একপর্যায়ে নুরুল আজিম ও তার কর্মীরা অধ্যক্ষকে শারীরিকভাবে আঘাত করেন বলে অভিযোগ ওঠে।

পদ ছাড়লেন নুরুল আজিম:

চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম পদত্যাগ করেছেন। নানা কারণে সমালোচনার মূখে পড়া নুরুল আজিম ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসজে/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত