artk
৩ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বুধবার ১৮ জুলাই ২০১৮, ২:৪৬ অপরাহ্ন

শিরোনাম

কোটা সংস্কার দাবি: চবিতে শাটল ট্রেন আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

জেলা সংবাদদাতা | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৬৫৪ ঘণ্টা, সোমবার ০৯ এপ্রিল ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ০৮৩০ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১০ এপ্রিল ২০১৮


কোটা সংস্কার দাবি: চবিতে শাটল ট্রেন আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ - জাতীয়

সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে ষোলশহর স্টেশনে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শাটল ট্রেন শহরে আটকে দিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

সোমবার সকাল ১১টার দিকে নগরীর বিশ্ববিদ্যালয়গামী শাটল ট্রেনটি আটকে দেয় তারা। অন্যদিকে নগরীর প্রবর্তক মোড়ে দুপুরে বেসরকারি প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও কোটা সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধন করে।

রোববার রাতে রাজধানীর শাহবাগে কোটা সংস্কারের পক্ষে আন্দোলনকারীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষের পর সোমবার সারাদেশে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্লাস বর্জনের ডাক দিয়েছিল তারা।

রোববার রাতে বন্দর নগরীর ষোলশহর রেল স্টেশন এলাকায় সড়ক অবরোধ করে এবং চবির এক নম্বর গেট এলাকায় সমাবেশ করে আন্দোলনকারীরা।

চবি ক্যাম্পাসে সকাল থেকেই ক্লাশ বর্জন কর্মসূচিতে অংশ নেয় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। চবির বিভিন্ন ছাত্রাবাস থেকে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা মিছিল নিয়ে বেরিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার এলাকায় জড়ো হয়। সেখানে শুরুতে মানববন্ধন করলেও পরে মিছিল নিয়ে তারা ক্যাম্পাসের জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত যায়।

জিরো পয়েন্টে পুলিশ তাদের আটকে দিলে আন্দোলনকারীরা আবারও মিছিল নিয়ে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে গিয়ে জড়ো হয়।

বিক্ষোভের মুখে সকাল ১১টা থেকে নগরীর সাথে ২২ কিলোমিটার দূরের শাটল ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় দুই থেকে আড়াইশ শিক্ষার্থী তথন স্টেশনে ছিল। তারা প্রায় সবাই চবির বিভিন্ন বিভাগের ছাত্রছাত্রী।

বেলা দেড়টা পর্যন্ত ট্রেন অবরোধকারী শিক্ষার্থীরা ষোলশহর স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করতে থাকে। এসময় সেখানে পুলিশ উপস্থিত ছিল।

আন্দোলনকারীদের প্রধান সমন্বয়কারী মো. আরজু বলেন, “ঢাকার সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করছি। দাবি না মানলে কঠোর আন্দোলনে বাধ্য হব।”

চবির সহকারী প্রক্টর লিটন মিত্র জানন, শাটল ট্রেন আটকে রাখার বিষয়টি শুনেছি। এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।
“শিক্ষার্থীদের সাথে আলোচনা করে শান্তিপূর্ণভাবে সব সমাধান করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ক্লাশ-পরীক্ষা স্বাভাবিক নিয়মেই হয়েছে।”

চবির বাংলা বিভাগে পূর্ব নির্ধারিত একটি পরীক্ষা ‘শিক্ষার্থী স্বল্পতার’ কারণে অনুষ্ঠিত হয়নি বলে স্বীকার করেছেন সহকারী প্রক্টর।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত