artk
১১ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সোমবার ২৫ জুন ২০১৮, ৩:৫৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম

পোশাককর্মীদের সর্বনিম্ন মজুরি ১৬ হাজার টাকার দাবিতে স্মারকলিপি

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৬১২ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১৩ মার্চ ২০১৮


পোশাককর্মীদের সর্বনিম্ন মজুরি ১৬ হাজার টাকার দাবিতে স্মারকলিপি - জাতীয়

বর্তমান বাজার পরিস্থিতিতে একজন পোশাক শ্রমিক ৫ হাজার ৩০০ টাকা মজুরি পান। তা দিয়ে সংসার চালানো দূরের কথা শ্রমিক নিজেই চলতে পারছে না। সেজন্য নতুন মজুরি বোর্ডের আওতায় পোশাক শ্রমিকদের নিম্নতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য পরিষদ।

মঙ্গলবার রাজধানীর তোপখানা রোডে নিম্নতম মজুরি বোর্ড কার্যালয়ের চেয়াম্যান সৈয়দ আমিনুল ইসলামের হাতে স্মারকলিপি দিয়ে এ দাবি জানান সংগঠনটি।

স্মারকলিপিতে দাবির পক্ষে বক্তব্য ও ছয়টি প্রস্তাব দেয়া হয়েছ।

নবগঠিত মজুরি বোর্ড তার অন্য সদস্যদের সাথে বৈঠকে এ বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে আলোচনা করবে বলে শ্রমিক নেতাদের আশ্বস্ত করেন বোর্ড চেয়ারম্যান।

উল্লেখ্য, চলতি বছর ১৪ জানুয়ারি তৈরি পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের জন্য নিম্নতম মজুরি বোর্ড গঠন করেছে সরকার।

চার সদস্যের মজুরি বোর্ডের চেয়ারম্যান হয়েছেন, জ্যেষ্ঠ জেলা জজ সৈয়দ আমিনুল ইসলাম।

মালিকপক্ষের প্রতিনিধি হিসেবে আছেন বাংলাদেশ অ্যামপ্লয়ার্স ফেডারেশনের শ্রম উপদেষ্টা কাজী সাইফুদ্দীন আহমদ, শ্রমিক পক্ষের প্রতিনিধি হিসেবে আছেন ফজলুল হক মন্টু।

নিরপেক্ষ প্রতিনিধি হিসেবে আছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন।

আগমী ১৯ মার্চ বোর্ডের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে।

স্মরকলিপি প্রধান অনুষ্ঠানে শ্রমিক নেতারা বলেন, ‘বাজারে চালের দাম বেড়েছে, অথচ সরকার পাঁচ বছর আগে শ্রমিকদের বেতন ৫ হাজার ৩০০ টাকা করেছে। এ বেতন দিয়ে শ্রমিকের সংসার চালানো দূরের কথা নিজেই চলতে পারছে না। অন্যদিকে কারখানগুলোতে ওভার টাইম বন্ধ রয়েছে, কোনো কোনো কারখনা কাজ না থাকায় সপ্তাহে দুই দিন বন্ধ রাখছে। এতে শ্রমিকরাই বিশেষ সমস্যায় পড়ছে।’

নতুন মজুরি বোর্ডকে সেপ্টেম্বররের মধ্যে নিম্নতম মজুরি ঘোষণার দাবি জানিয়ে শ্রমিক নেতারা বলেন, ‘সরকারের মেয়াদ শেষের বছর এ বোর্ড গঠন করা হয়েছে। তবে বোর্ড চাইলে মেয়াদ শেষের পূর্বেই শ্রমিদের স্বার্থে এ মজুরি ঘোষণা করতে পারবে।’

চেয়াম্যান সৈয়দ আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘এমন প্রস্তাব আরো কয়েকটি সংগঠন দিয়েছে, আামাদের বোর্ডের সিদ্ধান্ত আমি একা নিতে পারবো না। এ বোর্ডে মালিক-শ্রমিক স্থায়ী সদস্য, মালিক-শ্রমিক প্রতিনিধি, স্বাধীন সদস্য ও অন্যান্যরা রয়েছেন তাদের সাথে বসে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

‘আগামী ১৯ মার্চ বোর্ডের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে। শ্রমিক সংসগঠনের পক্ষ থেকে যেসব প্রস্তাবনা এসেছে তা গুরুত্বের সাথে উত্থাপন করা হবে বলে জানান তিনি।

স্মারকলিপি প্রদানের পূর্বে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে শ্রমিক সংগঠনটি। বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সমন্বয়ক মাহতাব উদ্দিনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জাতীয় গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মো. আমিরুল হক আমিন, বাংলাদেশ পোশাক শিল্প শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ তামিনা রাহমান, বাংলাদেম বিল্পবী গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি সালাউদ্দিন স্বপন, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশেনের সভাপতি কামরুল আহসান, জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি এম দেলোয়ার হোসেন, জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক জোট-বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আজিজ, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশননের সভাপতি কামরুল আহসান, জাতীয় গার্মেন্ট দর্জি সোয়েটার শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মো. রফিক, একতা গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান, বাংলাদেশ সংযুক্ত গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মো. বজলুর রহমান বাবলু প্রমুখ।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এস

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত