artk
৯ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, মঙ্গলবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১:০৬ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

মানসিকভাবে বিধ্বস্ত ছিলেন পাইলট, ফ্লাইট চালাতে বাধ্য করা হয়

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ০৯৩২ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১৩ মার্চ ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১২৫২ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১৩ মার্চ ২০১৮


মানসিকভাবে বিধ্বস্ত ছিলেন পাইলট, ফ্লাইট চালাতে বাধ্য করা হয় - জাতীয়

নেপালের কাঠমাণ্ডুতে বিধ্বস্ত হওয়া ইউএস বাংলার ফ্লাইটের ক্যাপ্টেন আবিদকে জোর করে ডিউটিতে পাঠানো হয়েছিল। মানসিকভাবে বিধ্বস্ত ছিলেন ওই পাইলট।

রোববার রাতে ইউএস বাংলার চাকরি থেকে ইস্তফা দেন ক্যাপ্টেন আবিদ। গত মাসে ইথোওপিয়া নামের একটি বিদেশি এয়ারলাইন্সে তার চাকরি হয়েছিল। ওই চাকরিতে যোগ দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করার পর থেকেই তার সঙ্গে ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষের টানাপোড়েন দেখা দেয়। এমনকি তিনি সোমবার নেপালের ফ্লাইট অপারেট করতে অনীচ্ছা প্রকাশ করার পরও তাকে বাধ্য করা হয়।

আইকাও নিয়ম অনুসারে কোনো পাইলটকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ফ্লাই করতে বাধ্য করা যায় না। এটা রীতিমতো সেফটির সঙ্গে আপস করা। দুনিয়াব্যাপী এই নিয়ম খুব কঠোরভাবে মানা হয়।

এ বিষয়ে অপর এক পাইলট বলেন, “ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাকে নেপাল যেতে বাধ্য করায় তিনি স্বভাবতই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন। মানসিক চাপ বা অশান্তি নিয়ে পাইলট যখন উড্ডয়ন ও অবতরণ করেন তখন একটা ঝুঁকি থাকে।”

ঢাকা থেকে নেপালের কাঠমান্ডুর উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া ইউএস-বাংলার একটি বিমান কাঠমান্ডু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয়ে ২৭ যাত্রী নিহত হয়েছেন। বিমানের থাকা ৭৮ যাত্রী ও ক্রুর মধ্যে ৫০ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

কাঠমান্ডু পোস্টের প্রতিবেদনের সূত্র দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনের জানানো হয়েছে, সোমবার দুপুর ১২টা ৫১ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৭৮ যাত্রী নিয়ে ছেড়ে যায় বিমানটি।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এফএ

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত