artk
১০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

বৃহস্পতিবার শেষ হচ্ছে পাটপণ্য মেলা

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১২০৬ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ০৮ মার্চ ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১৪২০ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ০৮ মার্চ ২০১৮


বৃহস্পতিবার শেষ হচ্ছে পাটপণ্য মেলা - অর্থনীতি

পাটের নতুন সম্ভাবনা জাগাতে বিশ্ববাজারে পাটজাত পণ্যের বৈচিত্র্য ও বাজার সম্প্রসারণের লক্ষ্যে রাজধানী বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জুট ডাইভাসিফিকেশন প্রমোশন সেন্টারের (জেডিপিসি) উদ্যোগে চলছে পাট পণ্যের মেলা। 

মঙ্গলবার শুরু হওয়া তিন দিনের এ মেলা শেষ হচ্ছে বৃহস্পতিবার।

এদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মেলার সমাপনী অনুষ্ঠান হবে। ওই অনুষ্ঠানে পুরস্কার প্রদান করা হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী মুহা. ইমাজ উদ্দিন প্রামাণিক ও বিশেষ অতিথি থাকবেন একই মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম।

মেলায় ১২০টি উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্যের পসরা সাজিয়ে বসেছে। মেলায় ২৩২ রকমের বহুমুখী পাটপণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করা করা হচ্ছে।

মেলায় পাওয়া যাচ্ছে পাটের তৈরি শাড়ি, পাঞ্জাবি, কটি, জ্যাকেট, স্যুট, সোফা, জামা, জুতা, বিছানার চাদর, ফুলদানি, ব্যাগ, মেয়েদের পার্স, কুশন, খাট, দেয়ালের চিত্রকর্ম, ভেড়া, হরিণ, কচ্ছপ, ঘোড়া। এসব পণ্যের দামও রয়েছে ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে। বাহারি ডিজাইনের ব্যাগ পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৩৫০ থেকে ৮০০ টাকায়। জুতার দাম রাখা হচ্ছে ৩৫০ টাকা। পাট পণ্যের এই মেলায় ভিড় জমিয়েছেন নগরবাসী। স্টলে স্টলে ঘুরে পাটের তৈরি জিনিসপত্র দেখছেন দর্শনার্থীরা। সেই সঙ্গে পছন্দের পণ্যটি সংগ্রহে ব্যস্ত তারা।

পল্লবীর আফনান জুটেক্স লিমিটেড মেলায় নিয়ে এসেছে পাটের তৈরি পাঞ্জাবি। প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শারিফ উদ্দিন খন্দকার জানান, তাদের নতুন পণ্য পাঞ্জাবির প্রতি দর্শনার্থীদের অনেক আগ্রহ। প্রতিটি পাঞ্জাবি বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার টাকায়। মেয়েদের দেখা গেল পাটের তৈরি জুতা, স্যান্ডেল ও ভ্যানিটি ব্যাগ কিনতে। মেলায় দৃষ্টিনন্দন লেডিস ব্যাগ, জুতা ও স্যান্ডেল নিয়ে এসেছে খুলনা জুটেক্স।

জুট ডাইভাসিফিকেশন প্রমোশন সেন্টার (জেডিপিসি) মার্কেটিং ডিরেক্টর অধরা বোস বলেন, “পাট পরিবেশবান্ধব ফসল। পাটের পণ্য ব্যবহারে পরিবেশের কোনো ক্ষতি হয় না। আমরা পাট দ্বারা তৈরি ২৩২ টি পণ্যে এখানে প্রদর্শনী ও বিক্রির জন্য রেখেছি। এই পাটের পণ্য আমরা সবাই যাতে ব্যবহার করতে পারি সে জন্য এ মেলা। প্রধানমন্ত্রী নিজে পাট পণ্য ব্যবহার করতে মানুষের উৎসাহী করছেন। আমারা আমাদের এই পাট পণ্য দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে রপ্তানি করবো।”

নিউজবাংলাদেশ.কম/এফএ

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য