artk
১০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১:১৮ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

পরকীয়ার জের: ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে যুবলীগ নেতার স্ত্রী

জেলা সংবাদদাতা | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২২৪১ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১০০৬ ঘণ্টা, শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮


পরকীয়ার জের: ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে যুবলীগ নেতার স্ত্রী - জাতীয়

পরকীয়ার জের ধরে কুষ্টিয়ার খোকসায় বিয়ের দাবিতে ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন যুবলীগ নেতার স্ত্রী। পরকীয়ার সম্পর্কটি জানাজানি হয়ে যাবার পর আগের সংসার ভেঙে যায় ওই নারীর। পরে বিয়ের জন্য চাপ দিলে নানা তালবাহানা শুরু করেন ছাত্রলীগ নেতা সুজনকে। গত সপ্তাহে সুজন বিয়ে করতে পারবে না বলে জানিয়ে দিলে বুধবার সন্ধ্যায় ওই নারী চুনিয়াপাড়ায় সুজনের বাড়িতে চলে আসেন।

ওই নারীর আসার খবরে সুজনের পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে তালা দিয়ে চলে পালিয়ে যান। পরে তালা ভেঙে ঘরের ভেতর প্রবেশ করেন তিনি। বর্তমানে বাড়িতে তিনি একাই অবস্থান করছেন।

জানা গেছে, উপজেলা যুবলীগের এক নেতার সঙ্গে প্রায় ১২ বছর আগে ঢাকার কেরানীগঞ্জের এক নারীর বিয়ে হয়। তাদের ঘরে ১০ বছরের একটি সন্তান আছে। গত বছর ওই নেতা জেলে থাকাবস্থায় তার স্ত্রীর সঙ্গে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সায়েম হোসেন সুজনের পরকীয়া হয়। সম্প্রতি দুজনের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কিছু ছবি মোবাইলে ছড়িয়ে পড়লে পরকীয়ার সম্পর্কটি জানাজানি হয়ে যায়।

এ ঘটনার জের ধরে গত জানুয়ারি মাসে যুবলীগ নেতা তার স্ত্রীকে তালাক দিলে তিনি ঢাকার কেরানীগঞ্জে তার বাবার বাড়িতে চলে যান।

ওই নারী জানান, সুজনের সঙ্গে দুই বছর ধরে তার পরকীয়া চলছে। পরকীয়ার কারণেই আগের সংসার ভেঙে গেছে। এখন সুজন বিয়ে করতে রাজি হচ্ছে না। তাই বাধ্য হয়েই সুজনের বাড়িতে অবস্থায় আসতে হয়েছে। তাকে যদি সুজন বিয়ে না করে তাহলে তিনি এখানেই আত্মহত্যা করবেন বলে জানান।

যুবলীগ নেতা জানান, তিনি জেলে থাকার সুযোগ নিয়ে সুজন তার স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে তোলে। বিষয়টি জানাজানি হলে তিনি সুজনের হাত ধরে অনেক অনুরোধ করেন। কিন্তু দুজনই তার কথা শোনেনি। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ওই নারী সুজনের বাড়িতেই অবস্থান করছে।

সায়েম হোসেন সুজনের সঙ্গে কথা বলতে তার মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও ফোন ধরেননি তিনি।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত