artk
৮ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ৩:২৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায়ের বিরুদ্ধে খালেদার আপিল                    

শিরোনাম

খালেদার রায়ের কপি মিলবে কবে?

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৮১৯ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১৮২৭ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮


খালেদার রায়ের কপি মিলবে কবে? - জাতীয়

খালেদা জিয়ার সই করার জন্য কারাগারে ওকালতনামা পৌঁছে দিলেও জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ের কপি না পাওয়ায় মঙ্গলবারও আপিল করতে পারেননি তার আইনজীবীরা।

আইনজীবীরা বলছেন, আগামী বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) নিম্ন আদালতের রায়ের ‘সার্টিফায়েড কপি’ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।  

সে কারণে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিচারিক আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে আগামী বৃহস্পতিবার হাই কোর্টে আপিল করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা।

সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবী জানিয়েছেন, প্রথমে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল আবেদন করা হবে। এরপর জামিন আবেদন করা হবে। ওই আইনজীবীর মতে, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন জামিন পাওয়ার যোগ্য। কেননা এ মামলায় খালেদা জিয়ার সাজার মেয়াদ কম। তার সামাজিক অবস্থা একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী তিনি। এ ছাড়া একজন নারী, তার বয়স ও স্বাস্থ্যগত বিষয়টি জামিন পাওয়ার ক্ষেত্রে আদালতের বিবেচনার বিষয় হবে। ফলে এ মামলায় জামিন পাওয়া নিয়ে তারা চিন্তিত নন।

ওই আইনজীবীর মতে, কয়েকটি মামলায় খালেদা জিয়াকে আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে। অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, সরকার চাচ্ছে না কেবল জিয়া অরফানেজ মামলায় খালেদা জিয়া জামিন পেয়ে বেরিয়ে যাক। রাষ্ট্রপক্ষ বিভিন্ন মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে তার কারাবাস দীর্ঘ করতে পারে বলে তার ধারণা।

কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করলেন বিএনপি নেতারা

মঙ্গলবার কারা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের অন্যতম আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া। সেখান থেকে বেরিয়ে তিনি সাংবাদিকদের জানান, তারা বিশেষ জজ আদালত-৫–এ যোগাযোগ করেছেন। তাদের বলা হয়েছে, কাল বুধবার কপি পাওয়া যাবে। কপি পেলে তারা বৃহস্পতিবার আপিল করবেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “খালেদা জিয়াকে অন্য মামলায় গ্রেপ্তার দেখানোর যে খবর বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে এসেছে তা সঠিক নয়। আমরা কারা কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করে জানতে চেয়েছি, বিভিন্ন গণমাধ্যমে যে খবর এসেছে- তা আসলে ঠিক কিনা। তারা আমাদের জানিয়েছে, তার বিরুদ্ধে সে রকম কোনো অর্ডার আসেনি।”

আদালত সূত্রে বলছে, গ্যাটকো, বড়পুকুরিয়াসহ তিনটি মামলায় খালেদা জিয়ার হাজিরার তারিখ রয়েছে। তবে এই মামলাগুলোতে খালেদা জিয়াকে নিজে উপস্থিত থাকতে হয় না। আইনজীবীর মাধ্যমেই তিনি হাজিরা দিতে পারেন বলে সানাউল্লাহ মিয়া জানান।

কারাগারের একজন কর্মকর্তা জানান, খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা তিনটি ওকালত নামা নিয়ে এসেছিলেন। সেগুলো গ্রহণ করে ‘ভেতরে’ পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া প্রায় ২ কোটি ১১ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে। এ মামলায় খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমানকে ১০ বছরের জেল ও সমপরিমাণ অর্থ জরিমানা করা হয়েছে।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসজে/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত