artk
৭ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রোববার ২১ জানুয়ারি ২০১৮, ৪:৫৩ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

এ বছরের শেষ দিকে জাতীয় নির্বাচন, সব দলকে চান হাসিনা

সিনিয়র রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৯৫৭ ঘণ্টা, শুক্রবার ১২ জানুয়ারি ২০১৮ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ০৯৪৪ ঘণ্টা, শনিবার ১৩ জানুয়ারি ২০১৮


এ বছরের শেষ দিকে জাতীয় নির্বাচন, সব দলকে চান হাসিনা - জাতীয়

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, “২০১৮ সালের শেষ দিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সংবিধান অনুযায়ী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে নির্বাচনকালীন সরকার গঠিত হবে। সেই সরকার সর্বোতভাবে নির্বাচন কমিশনকে নির্বাচন পরিচালনায় সহায়তা দিয়ে যাবে।”

সরকারের চার বছর পূর্তি উপলক্ষে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় জাতির উদ্দেশে ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, “ইতোমধ্যে রাষ্ট্রপতি অনুসন্ধান নীতির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠন করেছেন। আমি আশা করি, নিবন্ধিত সকল রাজনৈতিক দল এই নির্বাচনে অংশ নিয়ে গণতন্ত্রের ধারাকে সমুন্নত রাখবে।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমরা দিন বদলের সনদ ঘোষণা দিয়েছি। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলছি। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে আপনাদের জীবনমান সহজ এবং উন্নত করার উদ্যোগ নিয়েছি। আপনারা আজ সেসব সেবা পাচ্ছেন।”

দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, “ইন্টারনেট সার্ভিস প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। ৮ কোটি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবল স্থাপন করে ব্যান্ডউইথ বৃদ্ধি করা হয়েছে। গ্রামাঞ্চল পর্যন্ত ব্রডব্যান্ড সম্প্রসারণ করা হচ্ছে।”

প্রতিটি ইউনিয়নে ডিজিটাল সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “সেখান থেকে জনগণ ২০০ ধরনের সেবা পাচ্ছেন। সব ধরনের সরকারি ফরম, জমির পর্চা, পাবলিক পরীক্ষার ফল, পাসপোর্ট-ভিসা সম্পর্কিত তথ্য, কৃষি তথ্য, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, আইনগত ও চাকুরির তথ্য, নাগরিকত্ব সনদ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি প্রক্রিয়া, ক্রয়-বিক্রয়সহ বিভিন্ন বিল প্রদানের সুবিধা জনগণ পাচ্ছেন। ঘরে বসে আউটসোর্সিং-এর কাজ করে অনেক তরুণ-তরণী।”

শেখ হাসিনা সরকারের সাফল্য, চলমান নানা উদ্যোগ ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার নানা বিষয় তুলে ধরেন। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে জয়ী হয় আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোট। ১২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মন্ত্রিসভা শপথ নেয়।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসডি

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত