artk
৪ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সোমবার ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭, ১:০২ অপরাহ্ন

শিরোনাম

রসিক নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের দাবি রিজভীর

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৩৩৮ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১৮২০ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭


রসিক নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের দাবি রিজভীর - রাজনীতি

রংপুর সিটি করপোরেশন (রসিক) নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের দাবি জানিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, “নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনী পরিবেশ এখনো তৈরি করতে পারেনি ইসি।”

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানী নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

রংপুর সিটি নির্বাচন প্রসঙ্গে রুহুল কবির রিজভী বলেন, “নির্বাচনী মাঠে প্রচারণায় সকল প্রার্থীর সমান সুযোগ এখনো হয়নি। ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবে ভোটাররা এখনো ভয়ভীতির মধ্যেই রয়েছেন। এমন অবস্থায় রংপুর সিটি নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে কিনা, এ ব্যাপারে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে।”

রিজভী বলেন, “প্রধান নির্বাচন কমিশনের নেতৃত্বে কমিশনের ঊর্ধ্বতন ব্যক্তিদের মানসিকতা স্বাধীন না হলে কমিশনের আইনি স্বাধীনতা কোন কাজে আসে না।”

তিনি বলেন, আগামী ২১ ডিসেম্বর রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে ১৯৬টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৩৩টিই ঝুঁকিপূর্ণ। নির্বাচন কমিশন দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে না। আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বারবার আচরণবিধি লঙ্ঘন করলেও ইসি তার বিরদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছেন না।”

রিজভী বলেন, ক্ষমতাসীন দলের লোকেরা গোটা এলাকায় ভয়ভীতি ছড়াচ্ছে বলেও প্রার্থীরা অভিযোগ করেছেন। এমনকি ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীকে শুরু থেকে যেভাবে হয়রানি করা হয়েছে তাও নজিরবিহীন। আমরা আবারো নির্বাচন কমিশনকে বলতে চাই-ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীকে পেছনের দরজা দিয়ে জেতানোর কোন চেষ্টা করলে জনগণ সেটির উপযুক্ত জবাব দিবে।”

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা আব্দুস সালাম, আব্দুস সালাম আজাদ, মুনির হোসেন প্রমুখ।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এমএস

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত