artk
২ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, শনিবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭, ৩:০৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম

মিয়ানমারে সুনির্দিষ্ট নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা ভাবছে যুক্তরাষ্ট্র

বিদেশ ডেস্ক | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২২৪১ ঘণ্টা, বুধবার ২২ নভেম্বর ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১০৫২ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭


মিয়ানমারে সুনির্দিষ্ট নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা ভাবছে যুক্তরাষ্ট্র - বিদেশ
মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন

মিয়ানমারে রোহিঙ্গারা ভয়াবহ নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এমন তথ্যের উপর ভিত্তি করে এর জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে নির্দিষ্টভাবে কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার কথা বিবেচনা করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর সে দেশের সেনাবাহিনীর অভিযানকে 'এথনিক ক্লিনসিং' বা জাতিগত নিধন বলে বর্ণনা করে এ কথা জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন।

এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা জানান বলে বিবিসির খবরে বলা হয়েছে।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার বিবৃতিতে বলেন, “আমাদের হাতে যা তথ্য এসেছে তা খতিয়ে দেখে ও গভীরভাবে বিশ্লেষণ করলেই এটা পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে যে উত্তর রাখাইন প্রদেশের পরিস্থিতি রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে একটা জাতিগত নিধনযজ্ঞ ছাড়া আর কিছুই নয়।”

টিলারসন বলেন, এর ফলে রোহিঙ্গারা ভয়াবহ নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এবং সে কারণেই এর জন্য যারা দায়ী তাদের বিরুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নির্দিষ্টভাবে কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার কথা বিবেচনা করছে।

গত সেপ্টেম্বর মাসে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক প্রধান জেইদ রাদ আল হুসেইনও মিয়ানমারের বিরুদ্ধে জাতিগত নিধন চালানোর অভিযোগ এনেছিলেন।

যখন কিছুদিনের মধ্যেই খ্রিষ্টানদের ধর্মগুরু পোপ মিয়ানমার সফরে যাচ্ছেন এমন সময় এ মন্তব্য করলেন টিলারসন।

পোপ ফ্রান্সিসও আগামী ২৬ নভেম্বর মিয়ানমারে আসবেন বলে কথা রয়েছে।

ভ্যাটিকান জানিয়েছে, পোপ ওই সফরে মিয়ানমারের সেনাপ্রধান জেনারেল মিন অং লেইং ও সে দেশের ডি ফ্যাক্টো নেত্রী অং সান সু চি-র সঙ্গে বৈঠক করবেন।

এর আগে মার্কিন সেনেটন জেফ মার্কলের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল খুব সম্প্রতি মিয়ানমার ও তার প্রতিবেশী বাংলাদেশে সফর করে ফিরে এসেছেন।

ওই প্রতিনিধিদলের সদস্যরা বলেছেন, তারা রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন-হত্যা-খুন-ধর্ষণের যে সব ঘটনা শুনেছেন তা তাদের গভীরভাবে বিচলিত করেছে।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত