artk
৪ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সোমবার ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭, ১২:৪৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম

ইবির ১০০ শিক্ষার্থীর ভর্তি বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ

ইবি প্রতিনিধি | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৯০০ ঘণ্টা, বুধবার ২২ নভেম্বর ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ০৯২০ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭


ইবির ১০০ শিক্ষার্থীর ভর্তি বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ - শিক্ষাঙ্গন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) প্রশ্ন ফাঁসের দায়ে ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে বাতিল করা ‘এফ’ ইউনিটের ১০০ শিক্ষার্থীর ভর্তি বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ।

শিক্ষার্থীদের রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের আপিল খারিজ করে বুধবার এ রায় দেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ। তবে এসব শিক্ষার্থীরা কোন শিক্ষাবর্ষের সঙ্গে ক্লাস শুরু করবে তা জানায়নি আদালত।

শিক্ষার্থীদের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

গত বছেরর ৭ ডিসেম্বর ‘এফ’ ইউনিটের (গনিত ও পরিসংখ্যান বিভাগ) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরে ফল প্রকাশ ও ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়া ওই ইউনিটের প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ ওঠে। এবিষয়ে গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন অনুযায়ী ৬ মার্চ ওই ইউনিটের ভর্তি বাতিল করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ৮৮ শিক্ষার্থী হাই কোর্টে রিট করেন। শুনানি শেষে ১৭ এপ্রিল আদালত বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে। এর আগে ১৬ মার্চ পুনরায় পরীক্ষা নিয়ে শিক্ষার্থী ভর্তি করে কর্তৃপক্ষ। সেই সঙ্গে হাই কোর্টের স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আপিল করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এদিকে আদালতের রায় শিক্ষার্থীদের পক্ষে আসায় আনন্দ প্রকাশ করেছেন তারা। গণিত বিভাগের শিক্ষার্থী জুয়েল বলেন, “আমাদের বিশ্বাস ছিল, আমাদের প্রতি যে অবিচার করা হয়েছে তার প্রতিদান ফিরে পাব। আমরা আজ রায়ের মাধ্যমে সে অধিকার ফিরে পেয়েছি।”

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আব্দুল লতিফ বলেন, “রায়ের পূর্ণাঙ্গ কপি হাতে পেলে আমরা পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করব।”

প্রসঙ্গত, এফ ইউনিটের প্রশ্নফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ইউনিট সমন্বয়কারী গনিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নুরুল ইসলামকে সাময়িক বহিষ্কার এবং একই বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষর্থী মনোরঞ্জিতের সনদ বাতিল করা হয়।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসএমবি/একিউএফ

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য