artk
৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

তামিমের ব্যর্থতার দিনে কুমিল্লার সহজ জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২১৪৯ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১৪ নভেম্বর ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ২২০২ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১৪ নভেম্বর ২০১৭


তামিমের ব্যর্থতার দিনে কুমিল্লার সহজ জয় - খেলা

আইকন ক্রিকেটার হিসেবে তামিম ইকবাল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে মঙ্গলবার প্রথম ম্যাচেই ব্যাটিংয়ে ব্যর্থ হয়েছেন। তামিমের ব্যর্থতার দিনে চিটাগং ভাইকিংসকে সহজেই হারিয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ইমরুল কায়েস ও বাটলারের নান্দনিক ব্যাটিংয়ে চিটাগংকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে তারা। এ জয় দিয়ে বিপিএলে টানা তিন জয় কুমিল্লার। অন্যদিকে চার ম্যাচ খেলে তিন হার চিটাগংয়ের।

জয়ের জন্য ১৪০ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৮.১ ওভারে চার উইকেটে ১৪০ রান সংগ্রহ করে কুমিল্লা। সহজ জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের। আসরের প্রথম বিপিএল খেলতে নেমে কুমিল্লাকে হতাশ করেছেন ওপেনার তামিম ইকবাল। ১০ বল মোকাবেলা করে ৪ রানে মুনাবিরার বলে শুভাশীষের তালুবন্দি হন। আর এক ওপেনার লিটুন কুমার ভালো শুরু করে দলীয় ৩৯ রানের মাথায় মুনাবিরার বলে সরাসরি বোল্ড হন। ২০ বলে দুই বাউন্ডারিতে ২১ রান করেন লিটন।

দুই ওপেনারকে হারিয়ে তৃতীয় উইকেট জুটিতে ইমরুল কায়েস ও জস বাটলার ৭৪ রান যোগ করেন। জাতীয় দলের অভিজ্ঞ ওপেনার ইমরুল মাত্র ৫ রানের জন্য হাফসেঞ্চুরি করতে পারেনি। ৩৬ বলে দুই বাউন্ডারি ও তিন ছক্কায় ৪৫ রানের নান্দনিক ইনিংস খেলে দলীয় ১১৩ রানের মাথায় সানজামুলের বলে তানভিরের হাতে ক্যাচ দেন।

জয়ের জন্য কুমিল্লার প্রয়োজন তখন ২৮ বলে মাত্র ২৭ রান। এরপর মারলন স্যামুয়েলস সাত বলে ১১ রান করে বিদায় নেন। শেষ মুহূর্তে বাটলার ৩১ বলে তিন বাউন্ডারি ও দুই ছক্কায় ৪৪ রান করে বিদায় নেন। তবে স্যামুয়েলস ১৭ রান করে অপরাজিত থেকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন। চিটাগংয়ের হয়ে সানজামুল ও মুনাবিরা দুটি করে উইকেট নেন।

এর আগে মিরপুর শেরে-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিপিএলের ১৪তম ম্যাচে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে চার উইকেটে ১৩৯ রান সংগ্রহ করেছে চিটাগং ভাইকিংস। ব্যাটিংয়ে নেমে ওপেনিংয়ে ঝড় তুলেই বিদায় নেন লুক রনচি। ১৯ বলে এক ছক্কা ও পাঁচটি বাউন্ডারিতে ৩১ রান করে সাইফুদ্দিনের বলে এলবিডাব্লিউর শিকার হন ওপেনার লুক রনচি। ওপেনার সৌম্য সরকার ৩২ বলে ৩০ রান করে নবীর বলে স্ট্যাম্পিং হন। এতে দুটি বাউন্ডারি ও একটি ছক্কা রয়েছে।

এছাড়া মুনারাবিরা ১৯ ও সিকান্দার রাজা ২০ রান করে বিদায় নেন। শেষ শেষ মুহূর্তে অধিনায়ক মিজবাহ উল হক ১৬ ও ক্রিস জর্দান ১৬ রান করে অপরাজিত থাকেন। বল হাতে কুমিল্লার হয়ে নবী, সাইফুদ্দিন, রশিদ খান ও ব্রাভো একটি করে উইকেট নেন।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসএস/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য