artk
৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ১০:২৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম

গৌরীপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রকৌশলীকে মারধরের অভিযোগ

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২০২৩ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১৪ নভেম্বর ২০১৭


গৌরীপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রকৌশলীকে মারধরের অভিযোগ - জাতীয়

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাজহারুল ইসলামকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে অচিন্তপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলামের বিরুদ্ধে।

সোমবার বিকেলে উপজেলার প্রশাসনের কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান অভিযোগকারী মাজহারুল ইসলাম। এ ঘটনায় সোমবার রাতেই থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে। গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার আহমদ বলেন, “আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি।”

অভিযোগ ও প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাজহারুল ইসলাম অচিন্তপুর ইউনিয়নের কর্মসৃজন প্রকল্পের ট্যাগ অফিসার ছিলেন। সোমবার ইউপি চেয়ারম্যান প্রকল্পের কিছু জব কার্ড স্বাক্ষর করানোর জন্য প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ে এসে মাজহারকে স্বাক্ষর দিতে বলেন। মাজহার স্বাক্ষর দিতে অস্বীকৃতি জানালে চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম তাকে প্রকাশ্যে মারধর ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। এসময় ইউএনও মর্জিনা আক্তার বাধা দেয়ার পরও চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মাজহারকে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করেন।

এ বিষয়ে মাজহারুল ইসলাম বলেন, “অচিন্তপুর ইউনিয়নের কর্মসৃজন প্রকল্পের প্রথম ধাপের কিছু জব কার্ড হারিয়ে যায়। চেয়ারম্যান শহীদুল নিজেই ওই কার্ডের ডুপ্লিকেট কপি তৈরি করে স্বাক্ষর দেয়ার জন্য আমার ওপর চাপ সৃষ্টি করছিলেন। সোমবার আমি বিষষটি নিয়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকতার সাথে কথা বলার সময় চেয়ারম্যান শহীদুল অফিসে ঢুকে আমাকে মারধর ও গালি-গালাজ করেন। এখন আবার ঘটনা ধামাচাপা দিতে আমার বিরুদ্ধে টাকা দাবির অপপ্রচার করছেন চেয়ারম্যান।”

এদিকে, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন বলেন, “জব কার্ডে স্বাক্ষর না করায় চেয়ারম্যান আমার অফিসে মাজহারকে মারধর করেছেন। এ ঘটনায় মামলা প্রস্তুতি নিচ্ছি।”

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য মঙ্গলবার বিকেলে ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলামের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “আমি এখন গাড়িতে আছি। গাড়ি থেকে নেমে আপনাকে ফোন করবো।”

অপরদিকে, গৌরীপুরের ভারপ্রাপ্ত ইউএনও সাইফুল আলম বলেন, “মারধরের ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে। এছাড়া মাজহার যদি চেয়ারম্যানের কাছে টাকা দাবি করে থাকেন সেই বিষয়টিও তদন্ত করে দেখা হবে।”

নিউজবাংলাদেশ.কম/আরআইআর/এসডি

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত