artk
৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

আদালতে প্রতিবেদন: মজহারকে অপহরণের সত্যতা পাওয়া যায়নি

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৬০২ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১৪ নভেম্বর ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১০২২ ঘণ্টা, বুধবার ১৫ নভেম্বর ২০১৭


আদালতে প্রতিবেদন: মজহারকে অপহরণের সত্যতা পাওয়া যায়নি - কোর্ট-কাচারি

ফরহাদ মজহারকে অপহরণ করা হয়েছিল বলে তার স্ত্রী ফরিদা আখতার যে মামলা করেছিলেন এর কোনও সত্যতা পাওয়া যায়নি জানিয়ে আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেছে পুলিশ। সেই সঙ্গে মিথ্যা মামলা করায় তাদের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা করার অনুমতি চাওয়া হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির পরিদর্শক মাহবুবুল ইসলাম সম্প্রতি ঢাকার মহানগর মুখ্য হাকিম আদালতে ওই প্রতিবেদন জমা দেন বলে মঙ্গলবার জানিয়েছেন আদালত পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এসআই নিজামউদ্দীন।

আগামী ৭ ডিসেম্বর চূড়ান্ত প্রতিবেদনের ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

নিজামউদ্দীন জানান, মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলার দায়ের করায় দণ্ডবিধির ২১১ ও ১০৯ ধারায় ফরিদা আখতার ও ফরহাদ মজহারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য চূড়ান্ত প্রতিবেদনে আবেদন করা হয়েছে।

ফৌজদারি দণ্ডবিধির ২১১ ধারায় মিথ্যা মামলা দায়েরকারীকে দুই বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ড কিংবা উভয় দণ্ড দেয়ার বিধান রয়েছে। আর ২০৯ ধারা অনুযায়ী, অসাধুভাবে আদালতে মিথ্যা অভিযোগ উত্থাপন করলে সর্বোচ্চ দুই বছর কারাদণ্ডসহ অর্থদণ্ড হতে পারে।

উল্লেখ্য, ৩ জুলাই ভোরে শ্যামলী রিং রোডের নিজ বাড়ি থেকে পরিচিত একজনের ফোনে বেরিয়ে যান কবি ও প্রাবন্ধিক ফরহাদ মজহার। তার কিছুক্ষণ পর স্ত্রীকে ফোনে তিনি জানান, তাকে ঢাকার বাইরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ৩৫ লাখ টাকা না দিলে তাকে মেরে ফেলা হবে। এবিষয়ে সকাল ১০টার দিকে পরিবারের পক্ষ থেকে আদবর থানায় অভিযোগ করা হয়, যা পরে মামলা হিসেবে নথিভুক্ত হয়।

নিখোঁজের আঠারো ঘণ্টা পর ৪ জুলাই যশোর থেকে উদ্ধার হন ‌ফরহাদ মজহার। র‌্যাবের একটি দল তাকে যশোরের নোয়াপাড়ায় হানিফ পরিবহনের একটি বাস থেকে উদ্ধার করে। এবিষয়ে আদালতে জবানবন্দি দেন তিনি।

নিউজবাংলাদেশ.কম/একিউএফ

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত