artk
৮ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সোমবার ২৩ অক্টোবর ২০১৭, ৬:৩০ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

রাজস্থানে লোকশিল্পী খুন: ভিটেহারা ২০০ মুসলিম

বিদেশ ডেস্ক | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২১০০ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ১২ অক্টোবর ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১২৫২ ঘণ্টা, শুক্রবার ১৩ অক্টোবর ২০১৭


রাজস্থানে লোকশিল্পী খুন: ভিটেহারা ২০০ মুসলিম - বিদেশ

ভারতের বিজেপিশাসিত রাজস্থানে উগ্র হিন্দুদের হুমকিতে ভিটেহারা হয়ে পালিয়ে থাকা ২০০ মুসলিম খাদ্য সংকটে পড়েছে। জেলা প্রশাসন তাদের থাকার জায়গা দিলেও খাদ্যের কোনো ব্যবস্থা করেনি।

জানা গেছে, গ্রামে ফিরলে তাদের হত্যা করার হুমকি দিয়েছে স্থানীয় উচ্চ বর্ণের হিন্দুরা। তাই তারা ভয়ে আর গ্রামে ফিরতে চান না।

মন্দিরের পুরোহিতের হাতে এক মুসলিম লোকশিল্পী খুনের ঘটনায় এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

পুলিশ রমেশ সুথার নামে অভিযুক্ত ওই পুরোহিতকে গ্রেপ্তার করেছে। তার দুই সঙ্গীকেও ধরার চেষ্টা চলছে।

জানা গেছে, গত ২৭ আগস্ট জয়সলমীর জেলায় এক মন্দিরের পুরোহিত ও তার দুই সঙ্গী এক লোকসঙ্গীত শিল্পীকে হত্যা করেন। ওই শিল্পীর নাম আহমেদ খান। তিনি ও তার দল দীর্ঘদিন ধরেই ওই মন্দিরে হিন্দু ধর্মীয় গান গেয়ে আসছিলেন। কিন্তু ওইদিন পুরোহিত তার ওপরে ক্ষুব্ধ হন, অভিযোগ তোলেন গান ভালো হচ্ছে না। আর সে কারণে ভগবান নেমে এসে তার শরীরে প্রবেশ করছে না। আর তাই আহমেদ খানকে ডেকে নিয়ে বেধড়ক মারধর করেন তিনি। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান আহমেদ খান। এতে গ্রামের হিন্দু-মুসলিম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

আত্মীয় স্বজনদের আশ্বাসে এ নিয়ে থানায় অভিযোগ জানানোর পরেই রমেশ সুথার গ্রামের উচ্চবর্ণের হিন্দুদের নিয়ে এসে ওই পরিবারগুলোকে গ্রাম ছেড়ে যাওয়ার নির্দেশ দেয়। অন্যথায় তাদের হত্যা করা হবে বলে হুমকি দেয়া হয়। এরপরেই ২০টি মুসলিম পরিবারের প্রায় ২০০ সদস্য নিজেদের প্রাণ বাঁচাতে দান্তাল গ্রামে আশ্রয় নিয়েছেন।

পুলিশ প্রয়োজনীয় নিরাপত্তার আশ্বাস দিলেও ওই মুসলিম পরিবারের মানুষজন ভয় ও আতঙ্কে গ্রামে ফিরতে চাচ্ছেন না। জেলা কালেক্টরের পক্ষ থেকে ওই সব পরিবারের সদস্যদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করতে স্থানীয় নগর পরিষদ কর্তৃপক্ষকে ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। কিন্তু ওই মুসলিম পরিবারের লোকজন বলছেন তারা নিজেরাই খাবারের ব্যবস্থা করছেন কিন্তু এভাবে বেশীদিন চলবে না। প্রশাসন খাবারের ব্যবস্থা করতে কোনো সাহায্য করছে না বলে তারা বলছেন।

অন্যদিকে, নগর পরিষদ কর্তৃপক্ষ বলছেন তাদের কাছে খাবারের সুবিধা দেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ফান্ড নেই। তারা প্রত্যেক দিন খাবারের সুবিধা দিতে পারবে না বলেও জানিয়েছেন।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এনডি

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত