artk
৮ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সোমবার ২৩ অক্টোবর ২০১৭, ৬:৩৫ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

খালেদার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা: যুক্তরাজ্য বিএনপির প্রতিবাদ

আহসানুল আম্বিয়া শোভন, লন্ডন থেকে | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২২১০ ঘণ্টা, বুধবার ১১ অক্টোবর ২০১৭


খালেদার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা: যুক্তরাজ্য বিএনপির প্রতিবাদ - রাজনীতি

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন যুক্তরাজ্য বিএনপি।

স্থানীয় সময় গত মঙ্গলবার পূর্ব লন্ডনের বাডেট রোডের এক হলে যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালিক এতে সভাপতিত্ব করেন। সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমেদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহিদুর রহমান

এম এ মালিক বলেন, “দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জনপ্রিয়তায় অবৈধ সরকার ভীতসন্ত্রস্ত্র হয়ে আজ্ঞাবহ আদালতের মাধ্যমে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে। দেশের মানুষ আজ সরকারের দুঃশাসন ও অত্যাচারের কবলে জর্জরিত। দেশে প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে অবৈধ সরকার নিজেদের আখের গুছিয়ে নিচ্ছে। জনগণের ন্যায়বিচার প্রাপ্তির শেষ আশ্রয়স্থল উচ্চ আদালত পর্যন্ত সরকারের রোষানল থেকে মুক্ত নয়।”

প্রধান বিচারপতিকে গৃহবন্দী করে দেশ ত্যাগে বাধ্য করা হচ্ছে যার পরিনতি শুভ হবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সভাপতির বক্তবে এম এ মালিক বলেন, “শহিদ জিয়ার সূর্য সৈনিকরা মামলা ও গ্রেপ্তারি পরোয়ানায় ভীত নন।” তিনি অবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উপর থেকে সকল মিথ্যা মামলা ও ষড়যন্ত্রমূলক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা প্রত্যাহার না করলে যুক্তরাজ্য বিএনপি তার দাঁতভাঙ্গা জবাব দেবে বলে হুঁশিয়ারি দেন। তিনি বলেন, “চিকিৎসা শেষে অচিরেই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া দেশে ফিরে সরকারে সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করবেন।”

সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমেদ বলেন, “অবৈধ সরকারের বিদায় ঘণ্টা বেজে যাওয়ায় তাদের সাজানো মসনদে ভূমিকম্প শুরু হয়েছে। ব্যাংক ডাকাত হাসিনা সরকারের সকল অপকর্মের বিচার দেশের মাটিতে হবে। দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব বিসর্জনকারী আওয়ামী বাকশালীরা ক্ষমতা হারানোর ভয়ে হতাশাগ্রস্ত হয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উপর ষড়যন্ত্রমূলক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে।”

বক্তারা বলেন, একটা হীন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, মিথ্যা, বানোয়াট মামলায় ষড়যন্ত্রমূলক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং জাতীয়তাবাদী শক্তিকে বিচলিত করা যাবে না। জাতীয়তাবাদী শক্তি জনগণের শক্তি, এ শক্তিকে ধ্বংস করা যাবে না। সরকার তার নিজেদের পোষা বিশেষ বাহিনী দিয়ে ২০১৫ সালে সারা দেশে বাসে পেট্রোল বোমা মেরে যে তান্দবলীলা চালিয়েছিল তা জাতি এখনো ভুলে নাই। সেই সময় দেশের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে আওয়ামী বাকশালী পরিবারের লোকজনের সম্পৃক্ততা ছবিসহ প্রকাশিত হয়। কিন্তু সরকার হীন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করার জন্য বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মীর নামে মিথ্যা, বানোয়াট মামলা দায়ের করে। বিএনপি জনগণকে সাথে নিয়ে আওয়ামী বাকশালীদের সকল চক্রান্ত মোকাবিলা করতে প্রস্তুত। বক্তারা অভিলম্ভে, মিথ্যা মামলা ও ষড়যন্ত্রমূলক গ্রেফতারী পরোয়ানা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

প্রতিবাদ সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন- কেন্দ্রীয় বিএনপির আন্তর্জাতিক সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এ সালাম, যুক্তরাজ্য বিএনপির প্রধান উপদেষ্টা শায়েস্তা চৌধুরী কুদ্দুছ, কেন্দ্রীয় সহআন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন খোকন, যুক্তরাজ্য বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল হামিদ চৌধুরী, সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ, উপদেষ্টা আলহাজ তৈমুছ আলী, সহসভাপতি মো. গোলাম রাব্বানি, গোলাম রাব্বানি সোহেল, উপদেষ্টা মুজিবুর রহমান, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাবেক আন্তর্জাতিক সম্পাদক নসরুল্লাহ খান জুনায়েদ, যুগ্ম সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মামুন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ খান, কামাল উদ্দিন, সাবেক যুগ্মসম্পাদক নাসিম আহমেদ চৌধুরী, সহসাধারণ সম্পাদক শামসুর রহমান মাহতাব, আজমল হোসেন চৌধুরী জাবেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক শামিম আহমেদসহ অনেকে।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য