artk
৮ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সোমবার ২৩ অক্টোবর ২০১৭, ৬:৩৯ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

সু চির বক্তব্য ১৪ দলের প্রত্যাখ্যান, হতাশ বিএনপি

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৯০২ ঘণ্টা, বুধবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ০৯২৩ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭


সু চির বক্তব্য ১৪ দলের প্রত্যাখ্যান, হতাশ বিএনপি - রাজনীতি

রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি যে বক্তব্য দিয়েছেন তা প্রত্যাখ্যান করেছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোট। অন্যদিকে, তার বক্তব্যে হতাশা প্রকাশ করে তা সমর্থনযোগ্য নয় বলে জানিয়েছে বিএনপি।

বুধবার রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে সু চির বক্তব্যের আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানান ১৪ দলের সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম।

তিনি বলেন, “রোহিঙ্গাদের নিয়ে সু চির দেয়া কোনও বক্তব্য গ্রহণযোগ্য নয়। সব বক্তব্য আমরা প্রত্যাখ্যান করছি। মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী, যারা মিয়ানমারের নিরীহ মানুষকে হত্যা করছে, আমরা ১৪ দলের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা করছি। আমরা নিন্দা করি সু চির আজকের এই ভূমিকাকে। তিনি শান্তিতে নোবেল পেয়ে কীভাবে এই নির্যাতনকে প্রশ্রয় দিচ্ছেন?”

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে চাপ দিতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম বলেন, “আমরা আজকে অনুরোধ করব মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চীন, জাপান, ভারতসহ বিশ্বের বড় শক্তিধর দেশকে, তারা যেন এগিয়ে আসে। এই নিরীহ মানুষের দিকে তাকিয়ে মিয়ানমারকে চাপ সৃষ্টি করার জন্য।”

এদিকে, জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন বিএনপির মুখপাত্র জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, “গণমাধ্যমে আমরা অং সান সু চির যতটুকু ভাষণ পড়েছি, তাতে হতাশ হয়েছি। সেই ভাষণ সমর্থনযোগ্য নয়। বক্তব্য মনে হচ্ছে সেখানে যারা জুলুম করছে, নারকীয় তাণ্ডব চালাচ্ছে, সেই নিরাপত্তা বাহিনীর বক্তব্য ও কর্মকাণ্ডের অনুরূপ।”

সু চির বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, “আপনার বক্তব্যে আপনি বলেছেন, ৫ সেপ্টেম্বরের পরে রাখাইন রাজ্যে সহিংসতা হয়নি, বন্ধ হয়ে গেছে। আপনি আন্তর্জাতিকভাবে অত্যন্ত পরিচিত একজন নেত্রী সেই দেশের গণতান্ত্রিক সংগ্রামের জন্য। এতবড় মিথ্যা কথা আপনি বললেন কী করে? তাহলে দুই সপ্তাহ ধরে এত গ্রাম পুড়ল, এত বাড়ি-ঘর আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হল, এত মানুষের মৃত্যু, এত শিশুকে নাফ নদীতে নিক্ষেপ করা হল, এসব অবলীলায় আপনি অস্বীকার করলেন।”

নিউজবাংলাদেশ.কম/একিউএফ

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য