artk
৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ১০:৪১ অপরাহ্ন

শিরোনাম

গাজীপুরে জুয়ায় ব্যবহৃত জমি বাজেয়াপ্তের নোটিশ

গাজীপুর সংবাদদাতা | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ০৯৩২ ঘণ্টা, বুধবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭


গাজীপুরে জুয়ায় ব্যবহৃত জমি বাজেয়াপ্তের নোটিশ - জাতীয়

গাজীপুরের শ্রীপুরে জুয়ায় ব্যবহৃত জমি বাজেয়াপ্তের নোটিশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসন। একাধিকবার ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জুয়ার আসর থেকে গ্রেপ্তারকৃতদের কারাদণ্ড ও ভেঙে দেয়ার পরও জুয়ার কর্মকাণ্ড চালানোয় এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর স্বাক্ষরিত ওই নোটিশ জমির মালিক শ্রীপুর থানাধীন কেওয়া গ্রামের আবদুল গফুর গংদের কাছে পৌঁছে দেয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের ওই নোটিশে বলা হয়েছে, আব্দুল গফুর গংদের মালিকানাধীন জমি পতিত অবস্থায় ফেলে রাখার ফলে সেখানে অবৈধ জুয়ার আসর চলছে। এ সংক্রান্ত সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যমে ব্যাপকভাবে প্রকাশিত ও প্রচারিত হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পর্যায়ক্রমে ১০/১২ বার জুয়ার আসর ভেঙে দেয়ার পরও পুনরায় তা চলছে। সর্বশেষ গত ২৮ আগস্ট র‌্যাবের সহায়তায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ২৩ জনকে শাস্তি দেয়া হয়েছে।

এমতাবস্থায়, ‘কেন মালিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না এবং মালিকানাধীন জমি পতিত রেখে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের সুযোগ দেয়ার রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করে কেন তা খাস জমি করা হবে না’ তার জবাব তিন দিনের মধ্যে দিতে বলা হয়েছে। ধার্যকৃত সময়ে জবাব দিতে ব্যর্থ হলে জেলা প্রশাসন ধরে নিবে এই বিষয়ে জমির মালিক পক্ষদের কোনো বক্তব্য নেই।

গাজীপুরে জুয়া ঠেকাতে জমি বাজেয়াপ্তের এই নোটিশের অনুলিপি গাজীপুর পুলিশ সুপার, শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, সহকারী কমিশনার (ভূমি), ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা ও শ্রীপুর পৌর ভূমি অফিসকে দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. রাহেনুল ইসলামের ভাষ্য, ওই জমি জুয়ার কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে। জুয়া অপরাধে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এদের ছাড় দেয়া হবে না। গাজীপুরে যে স্থানে বা যার জমিতেই জুয়া খেলা হবে সেই জমিই রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করা হবে।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এমএস

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত