artk
৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ১০:৪০ অপরাহ্ন

শিরোনাম

সিন্ডিকেট করে দাম বাড়ানো হচ্ছে বরফের, প্রভাব পড়ছে ইলিশে

ইমরান হোসেন, বরগুনা প্রতিনিধি | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২১১১ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ০৯১৬ ঘণ্টা, বুধবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭


সিন্ডিকেট করে দাম বাড়ানো হচ্ছে বরফের, প্রভাব পড়ছে ইলিশে - বিশেষ সংবাদ

বরগুনায় হঠাৎ করেই মাত্রাতিরিক্ত বেড়েছে বরফের দাম। আর এ দাম বৃদ্ধির কারণে চরম লোকসানের মুখে পড়েছেন পাইকার ও আড়ৎদাররা। সিন্ডিকেটের মাধ্যমে দাম বৃদ্ধি করায় স্বাভাবিকের থেকে বরফের দাম বেড়েছে ৪ গুন। তবে বরফ মিল মালিকদের দাবি, অতিরিক্ত লোড শেডিংয়ের কারণে বরফ উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় দাম কিছুটা বেড়েছে। এদিকে, সরকারি বরফ মিল বন্ধ থাকায় বেসরকারি বরফ কল মালিকরা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে দাম বৃদ্ধি করার সুযোগ পেয়েছে বলে দাবি করছে পাইকার ও আড়ৎদাররা।

বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মাছের পাইকারী বাজার বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র। যেখান থেকে প্রতিদিন শত শত মন বিভিন্ন প্রজাতির সামুদ্রিক মাছ দেশের বিভিন্ন স্থানে রপ্তানি করেন কয়েক হাজার পাইকার। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে পাইকারী এ বাজারে বরফের দাম বেড়েছে ৪ গুন বেশি। কয়েকদিন আগেও এক ক্যান বরফের দাম ছিল ১০০ টাকা। কিন্তু এ সপ্তাহে এক ক্যান বরফ বিক্রি হচ্ছে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকায়।

পাথরঘাটা বিএফডিসির একাধিক জেলেরা নিউজবাংলাদেশকে জানান, হঠাৎ করেই সবকটি বরফ মিল একসঙ্গে দাম বৃদ্ধি করেছে। ১০০ টাকার বরফ ৫০০ টাকা। তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার। নিলে নেও না নিলে ভাগো। এমন অবস্থায় মাত্রাতিরিক্ত দামে বরফ কিনে সাগরে যাচ্ছেন তারা। তাই মাছের দাম বৃদ্ধি করে পাইকারদের কাছে বিক্রি করতে হয়।

অপরদিকে পাইকাররা জানান, জেলেদের নিকট থেকে তারা হাফ কেজি ওজনের এক মণ ইলিশ ক্রয় করতো ১৫ হাজার টাকায়। আর বর্তমানে তার মূল্য ২৫ হাজার টাকা। এক কেজি ওজনের মণ ছিল আগে ৩০ হাজার টাকা বর্তমানে তা ৪০ থেকে ৪৫ হাজার টাকা। বরফের দাম কম থাকলে এমনটা হতো না বলে দাবি পাইকারদের।

তবে আড়ৎদাররা নিউজবাংলাদেশকে জানান, সরকারি বরফ কল বন্ধ থাকায় বেসরকারি বরফ কল মালিকরা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে বরফের দাম অতিরিক্ত হারে বাড়িয়েছে। যার প্রভাব পড়ছে ইলিশের ওপর। তাই পর্যাপ্ত ইলিশ থাকা সত্বেও দাম বৃদ্ধি।

বরফের দাম বৃদ্ধির বিষয়ে শিকার করে বরফ মিল মালিকরা নিউজবাংলাদেশকে জানান, বিদ্যুতের লোড শেডিংয়ের কারণে বরফের উৎপাদন কম। তাই দাম কিছুটা বাড়ানো হয়েছে।

বরফ কল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান বলেন, “বরফের দাম নিয়ন্ত্রণে আনা হচ্ছে। কয়েক দিনের মধ্যেই বরফের দাম স্বাভাবিক হবে।”

তবে কি কারণে বিএফডিসির বরফ কল বন্ধ রয়েছে এ ব্যাপারে বার বার যোগাযোগের চেষ্টা করেও বিএফডিসির কর্মকর্তা লে. এম নুরুল আমিনকে অফিসে পাওয়া যায়নি।

পাথরঘাটা ট্রলার মালিক সমিতির দেয়া তথ্য মতে, পাথরঘাটা বিএফডিসির বরফ কলটি প্রায় ৭ বছর ধরে বন্ধ রেখেছে কর্তৃপক্ষ।

নিউজবাংরাদেশ.কম/এসজে/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত