artk
৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, মঙ্গলবার ২১ নভেম্বর ২০১৭, ৭:৩৬ অপরাহ্ন

শিরোনাম

এমপি হওয়ার জন্য আপনি আপস করে যাচ্ছেন: অ্যাটর্নি জেনারেলকে প্রধান বিচারপতি

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৭২৭ ঘণ্টা, বুধবার ১৬ আগস্ট ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ০৯৩৫ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ১৭ আগস্ট ২০১৭


এমপি হওয়ার জন্য আপনি আপস করে যাচ্ছেন: অ্যাটর্নি জেনারেলকে প্রধান বিচারপতি - কোর্ট-কাচারি

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ‘প্রশাসনের সঙ্গে আপোশ করে যাচ্ছেন’ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।

বুধবার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা সংক্রান্ত মামলার আপিল শুনানির সময় তিনি এ মন্তব্য করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা মামলার শুনানিতে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আদালতকে বলেন, “নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল দিয়ে মাছ ধরাসহ বিভিন্ন অপরাধ বন্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো দরকার।”

তখন প্রধান বিচারপতি বলেন, “আদালত কারেন্ট জাল দিয়ে মাছ ধরা অবৈধ ঘোষণা করেছে।”

এ সময় অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, “আমার বাড়ি পদ্মার পাড়ে। আমি তো এখনও দেখি, কারেন্ট জাল দিয়ে মাছ ধরা হচ্ছে।”

এর জবাবে প্রধান বিচারপতি বলেন, “আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর না হলে আমাদের কী করার আছে। আমি শুনলাম, আপনি নির্বাচন করছেন, তাইতো এলাকায় যান। আপনি তো প্রশাসনের সঙ্গে আপস করে চলছেন।”

প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, “আমরা তো ইলিশের গন্ধ পাই না। যত তাড়াতাড়ি এটা (নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা) ঠিক করবেন, ততই সরকারের লাভ।”

এর আগে প্রধান বিচারপতি অ্যাটর্নি জেনারেলকে উদ্দেশ করে বলেন, “আমি আপনাকে একটা তালিকা দেবো। সিআরপিসি’র সঙ্গে এর কয়েকটি ধারা সাংঘর্ষিক। এগুলো ঠিক হওয়া উচিত। আমরা আইনের বাইরে বিচার করব না। আইনের অধীনেই বিচার করব।”

অ্যাটর্নি জেনারেল সময় আবেদন জানিয়ে বলেন, “আমার প্রস্তুতির জন্য সময় দরকার।” পরে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে ছয় বিচারপতির আপিল বেঞ্চ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ ১০ অক্টোবর পর্যন্ত স্থগিত করেন।

গত ১১ মে নির্বাহী হাকিম দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা সংক্রান্ত ২০০৯ সালের আইনের ১১টি ধারা ও উপধারাকে অবৈধ ও অসাংবিধানিক ঘোষণা করে হাইকোর্ট।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এনডি

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত