artk
১০ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সোমবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৩:৫৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম

এতিমখানা ট্রাস্ট মামলা: চতুর্থবার বিচারক বদলের আবেদন খালেদার

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৬৫৫ ঘণ্টা, রোববার ০৬ আগস্ট ২০১৭


এতিমখানা ট্রাস্ট মামলা: চতুর্থবার বিচারক বদলের আবেদন খালেদার - রাজনীতি

জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট মামলায় চতুর্থবারের মত বিচারক বদলের আবেদন করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ন্যায়বিচার না পাওয়ার আশঙ্কার কথা জানিয়ে এ আবেদন করা হয়।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী দলের সদস্য মাহবুবউদ্দিন খোকন জানান, হাই কোর্ট সোমবার এ বিষয়ে শুনানির দিন রেখেছে।

খালেদা জিয়ার আবেদনে এর আগেও তিনবার এ মামলার বিচারক বদলে দিয়েছিল হাই কোর্ট। জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটেছে, যাকে বিচার বিলম্বিত করার চেষ্টা হিসেবে দেখছে দুদক।

দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ গত ৩ অগাস্ট সাংবাদিকদের বলেন, ‘তুচ্ছ’ বিষয় নিয়ে আসামিপক্ষ বারবার সময় নেওয়ায় মামলা দীর্ঘায়িত হচ্ছে।

রোববার খালেদার আইনজীবী জাকির হোসেন ভূইয়া সুপ্রিম কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই আবেদন করেন। পরে এটি বেঞ্চে উপস্থাপন করেন খালেদা জিয়ার অপর আইনজীবী জমিরউদ্দিন সরকার ওই আবেদন বিচারপতি মো. শওকত হোসেন ও বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার।

আসামিদের মধ্যে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া, মাগুরার সাবেক সাংসদ কাজী সালিমুল হক কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ জামিনে আছেন। খালেদার বড় ছেলে তারেক রহমান আছেন দেশের বাইরে।

এছাড়া সাবেক মুখ্য সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান মামলার শুরু থেকেই পলাতক।

জরুরি অবস্থার সময়ে দুদকের দায়ের করা এ মামলা বর্তমানে ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. আখতারুজ্জামানের আদালতে বিচারাধীন। আর জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার মত এ মামলারও শুনানি চলছে বকশীবাজারে কারা অধিদপ্তরের মাঠে স্থাপিত বিশেষ এজলাসে।

খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা গত ২৭ জুলাই এতিমখানা দুর্নীতি মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের ১১ সাক্ষীকে পুনরায় জেরা করার আবেদন করলে বিচারক তা নাকচ করে ৩ অগাস্ট পরবর্তী শুনানির দিন রাখেন।

কিন্তু ওইদিন তার আইনজীবীরা আদালতকে জানান, চিকিৎসার জন্য বিএনপি চেয়ারপারসন লন্ডনে গেছেন।

মামলার বিচার কার্যক্রম চলার সময়ে লন্ডনে অবস্থান করায় সেদিন খালেদা জিয়ার জামিন বাতিলের আবেদন করে দুদক। এ বিষয়ে সোমবার আদেশ হওয়ার কথা রয়েছে।

এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট মামলা দায়ের করে দুদক। ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়। তদন্ত শেষে দুদক ২০০৯ সালের ৫ অগাস্ট আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে।

২০১৪ সালের ১৯ মার্চ ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ বাসুদেব রায় অভিযোগ গঠন করে খালেদাসহ ছয় আসামির বিচার শুরুর নির্দেশ দেন। কিন্তু পরে খালেদার আবেদনে হাই কোর্টের আদেশে আবু আহমেদ জমাদারকে এ মামলা বিচারের দায়িত্ব দেয়া হয়।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত