artk
১ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ৪:১৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম

পার্লামেন্ট এখন তাদের, যাদের টাকা আছে: মেনন

জেলা সংবাদদাতা | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২২০৫ ঘণ্টা, শুক্রবার ০৪ আগস্ট ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ০৯০৯ ঘণ্টা, শনিবার ০৫ আগস্ট ২০১৭


পার্লামেন্ট এখন তাদের, যাদের টাকা আছে: মেনন - রাজনীতি

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, “পার্লামেন্ট এখন তাদের, যাদের টাকা আছে। ওই পার্লামেন্টে আজকে শ্রমিক-কৃষকের জায়গা নাই। আজকে আমাদের অবশ্যই অবশ্যই এই পার্লামেন্ট সম্পর্কে ভাবতে হবে। এই পার্লামেন্টে যাতে শ্রমিক-কৃষকদের জায়গা হয়, সে ব্যবস্থা করত হবে।”

শুক্রবার চট্টগ্রামের নগরীর জেএম সেন হলে দলের এক কর্মী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী মেনন বলেন, “শ্রমিকদের দাবি আদায়ের পক্ষে দাঁড়াতে পারে, সংসদে এমন পাঁচজনকেও তিনি দেখেন না।”

শ্রমিকবান্ধব সংসদ সদস্যের ‘অভাবে’ সংসদে শ্রমিকদের দাবির পক্ষে সোচ্চার হতে পারছেন না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

মেনন বলেন, “আজকে যদি সংসদে কৃষকদের কোনো প্রতিনিধি থাকত, শ্রমিকের প্রতিনিধি থাকত; আমার পাশে যদি আর পাঁচজনকে পেতাম, তাহলে বজ্রকণ্ঠে বলতে পারতাম- শ্রমিকের দাবি তোমরা মেনে নাও। কিন্তু সে আওয়াজ আমরা তুলতে পারছি না।”

ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি বলেন, “মন্ত্রী হয়েও তিনি পার্লামেন্টে শ্রমিকের জন্য কথা বলতে পারেন, যা ‘অন্যরা পারেন না’।”

সংসদে নিজেদের অবস্থান সংহত করতে হলে শ্রমিকদের ‘নিজেদের স্বার্থের’ দলকে, সংগঠনকে চিনতে হবে বলে মন্তব্য করেন মেনন।

সরকারের এই শরিক নেতা বলেন, “ভুল জায়গায় ভোট দেবেন না, মার্কা দেখে চক্ষু চড়কগাছ করবেন না।…

নিজের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বিমান পরিবহন মন্ত্রী বলেন, “সরকারি পে কমিশন বাস্তবায়িত হয়ে আরেকটি পে কমিশনের সময় চলে আসছে, অথচ শ্রমিকের জন্য এখনো মজুরি কমিশন হয়নি।”

সরকার পাট খাতকে পুনরায় সচল করতে নানা পদক্ষেপ নিলেও শ্রমিকদের দিকে মনোযোগ দিচ্ছে না বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

“সরকার পাটকল চালু করার উদ্যোগ নিয়েছে, পাট দিবস ঘোষণা করা হয়েছে, এ নিয়ে জাতীয় উৎসব হচ্ছে। অথচ শ্রমিকের বেতন সপ্তাহের পর সপ্তাহ বাকি পড়ছে; শ্রমিক অভুক্ত থাকছে। পেটে খিদে নিয়ে শ্রমিক কীভাবে কাজ করবে?”

পাটচাষীরা ন্যায্য পাওনা থেকেও বঞ্চিত হচ্ছে জানিয়ে মেনন বলেন, এ বছর পাটের বাম্পার উৎপাদন হবে। গত বছরের পাট এখনো গুদামে রয়ে গেছে। অথচ পাটের অভাবে পাটকলগুলো চলতে পারে না।

“কৃষক বড় আশা করেছিল, তারা পাটের দাম পাবে। কিন্তু সে আশার গুড়ে বালি। এবার মৌসুমের শুরুতে পাটের দাম নিম্নমুখী।”

দেশের মাটিতে প্রবাসী শ্রমিকদের হয়রানির বিষয়টিও তুলে ধরেন মেনন।

“থাইল্যান্ড যাওয়ার জন্য, মালয়েশিয়া, ইউরোপ যাওয়ার জন্য যারা ভূমধ্যসাগর, ভারত মহাসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে শয়ে শয়ে মরে, হাড়ভাঙা পরিশ্রম করে, তাদের রেমিট্যান্সে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ শক্তিশালী হয়, তারা যখন বিমানবন্দরে নামে, তখন তার ভাগ্যে কী ঘটে সেটা বিমানমন্ত্রী হিসেবে আমি ছাড়া আর কেউ ভালো জানে না।”

প্রবাসীদের কল্যাণে মন্ত্রণালয় থাকলেও তারা যখন দেশে ফিরে আসেন, তখন তাদের যে সম্মান পাওয়ার কথা, সেটা তারা পান না বলেও আক্ষেপ করেন মেনন।

পার্লামেন্টে নানা আইন পাস হলেও প্রবাসী শ্রমিকদের জন্য একটি আইনের খসড়া তিন বছর ধরে আটকে থাকায় তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের এই মন্ত্রী সংসদের বাইরে থাকা বিএনপিরও সমালোচনা করেন।

নির্বাচন এলেই ষড়যন্ত্র শুরু হয়ে যায় মন্তব্য করে তিনি বলেন, কোনো ষড়যন্ত্রই সামনের নির্বাচনকে বানচাল করতে পারবে না।

“বিএনপি নির্বাচনে তার পরিণতি জানে বলে নির্বাচন বানচাল করতে নানা গান গাইতে শুরু করেছে। সহায়ক সরকার দাও, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড দাও, সেনাবাহিনী দাও- এসব তারই অংশ।”

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ওয়ার্কার্স পার্টির চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি অ্যাডভোকেট আবু হানিফ। সঞ্চালনায় ছিলেন ওয়ার্কার্স পার্টি চট্টগ্রাম অঞ্চলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শরীফ চৌহান।

অন্যদের মধ্যে জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আমিরুল হক আমির, ফয়েজ আহমদ, সামশুল আলম, দিদারুল আলম চৌধুরী ও জসিম উদ্দিন অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসডি

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য