artk
১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০১৭, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

রেকর্ড গড়ে উইম্বলডনের রাজা ফেদেরার

স্পোর্টস ডেস্ক | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২১০২ ঘণ্টা, রোববার ১৬ জুলাই ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ২১৪৬ ঘণ্টা, রোববার ১৬ জুলাই ২০১৭


রেকর্ড গড়ে উইম্বলডনের রাজা ফেদেরার - খেলা
রেকর্ড ট্রফিতে চুমু খাচ্ছেন ফেদেরার

আগেও জিতেছেন এই টুর্নামেন্টের শিরোপা। তারপরও জয়সূচক পয়েন্ট পাওয়ার পর আবোগপ্লুত ফেদেরার। চোখ দুটি ভেজে আসল। হাতে থাকা বল ছুড়ে মারলেন গ্যালারির দিকে। বৃষ্টির মতো করতালি দিয়ে ফেদেরারকে অভিনন্দন জানালেন দর্শকরা। 

রোববার উইম্বলডন ওপেনে রেকর্ড গড়ে শিরোপা জিতলেন সুইস তারকা রজার ফেদেরার। রোববার সেন্টার কোর্টের ফাইনালে সরাসরি সেটে উড়িয়ে দেন তিনি মারিন চিলিচকে। ৬-৩, ৬-১, ৬-৪ সেটে ম্যাচ জিতে ফেদেরার জানান দিলেন এখনও ফুরিয়ে যাননি তিনি।

উইম্বলডন ওপেন জিতে বেশ কিছু রেকর্ডের জন্ম দিলেন ফেদেরার। উইম্বলডনে এটি ফেদেরারের রেকর্ড সর্বোচ্চ অষ্টম শিরোপা। সাতটি করে গ্রান্ডস্লাম জেতা পিট সাম্প্রাস ও উইলিয়াম রেনশ চলে গেলেন দ্বিতীয় স্থানে।

আবার বয়সের দিক থেকেও একটি রেকর্ড গড়েছেন ফেদেরার। ১৯৭৫ সালে ৩১ বছর বয়সে উইম্বলডন জিতে এই টুর্নামেন্টের বয়োজ্যেষ্ঠ চ্যাম্পিয়ন ছিলেন আর্থার অ্যাশ। তাঁকেও ছাড়িয়ে গেলেন ফেদেরার ৩৫ বছর ১১ মাস ৮ দিন  বয়সে চ্যাম্পিয়ন হয়ে।

পিট সাম্প্রাসকে (১৪) ছাড়িয়ে যাওয়ার পর থেকেই রেকর্ডটি রজার ফেদেরারের দখলে। বর্তমানে ১৯টি গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ড আরও উপরে তুলে ধরলেন ফেদেরার। ২০১২ সালের পর উইম্বলডন জিতলেন ফেদেরার। এই বুড়ো বয়সেও যে ধার, তাতে বলাই যায় কোথায় থামবেন ফেদেরার, তা হয়তো টেনিস ঈশ্বরই ভালো জানেন।

প্রথম থেকেই নিজের আধিপত্য জানান ফেদেরার। প্রথম সেট জেতেন ৬-৩ গেমে। তবে দ্বিতীয় সেটটা আরও সহজে জেতেন। যেখানে ব্যবধান ৬-১। অবশ্য এই সেটের সময়ই চোট পান চিলিচ। মাঝে মেডিক্যাল টাইম আউট নেন ক্রোয়েশিয়ান টেনিস তারকা। পায়ে বাধেন ব্যান্ডেজ। সেবন করেন ওষুধও। তৃতীয় সেটে কিছুটা ঘুড়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছিলেন চিলিচ। 

কিন্তু অপ্রতিরোধ্য ফেদেরারের সামনে সবই যেন নস্যি। তৃতীয় সেট ফেদেরার জিতলেন ৬-৪ গেমে। শিরোপা নিশ্চিত। খেলার প্রয়োজন পড়েনি বাকি দুই সেট। জিতে অশ্রুসিক্ত ফেদেরার, অন্যদিকে শিরোপা খোয়ানোয় কাঁদলেন চিলিচও। 

নিউজবাংলাদেশ.কম/এমএনসি 

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য