artk
৬ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭:৩৩ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

সবুজ আপেল খাবেন যে কারণে

লাইফস্টাইল প্রতিবেদক | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৩৪৭ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ০৪ জুলাই ২০১৭


সবুজ আপেল খাবেন যে কারণে - লাইফস্টাইল

ফলের মধ্যে আপেলই সবচেয়ে পরিচিত ফল। বিদেশি ফল হিসেবে দেশের সর্বত্র সবসময় পাওয়া যায় আপেল। প্রতিদিনের নাস্তা থেকে রোগীর পথ্য-সব জায়গাতেই রয়েছে আপেল। আপেল সাধারণত কয়েক প্রকারের হয়ে থাকে। তার মধ্যে লাল ও সবুজ বেশি চোখে পড়ে। সবুজ আপেলের রয়েছে বেশকিছু গুণ। নিউজবাংলাদেশের পাঠকের জন্য আজ জানাবো সবুজ আপেলের গুণাগুণ।

সবুজ আপেলের সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ উপদান হল ফাইবার, যা সবুজ আপেলে আছে প্রচুর পরিমাণে। সবুজ আপেলের এই ফাইবার উপাদান আমাদের পেটের যেকোনো সমস্যা রোধ করতে সাহায্য করে ও পরিপাক প্রক্রিয়া সঠিকভাবে কাজ করতে সহায়তা করে। এই ফলটি ফাইবার উপদান আমাদের দেহকে কোলন ক্যানসার রোগ হওয়া থেকে রক্ষা করে।

এই ফলে কোনো ক্ষতিকর কোলেস্টেরল নেই এবং যতটুকু আছে তাও মাত্রায় খুব কম। যেহেতু সবুজ আপেলে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার উপাদান আছে তা দেহের কোলেস্টেরল মাত্রার ভারসাম্য বজায় রাখে। সবুজ আপেলে আছে এনজাইম উপাদান যা খুব দ্রুত খাদ্য হজম করতে সাহায্য করে।

সবুজ আপেলে আছে ফ্লেভনয়েড ও পলিফেনল যা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান। আর এই উপদান দুটি আমাদের দেহের DNA এর ক্ষতি রোধ করে এবং ক্যানসারও রোধ করে।

সবুজ আপেল আমাদের দেহে শক্তি যোগায়। সবুজ আপেলের অন্যতম উপদান কার্বোহাইড্রেট যা আমাদের দেহের জন্য খুব উপকারী। বিশেষ করে যারা খেলাধুলা করেন, কঠোর পরিশ্রম করেন তারা প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় সবুজ আপেল অবশ্যই রাখুন।

সবুজ আপেল আমাদের দেহের লিভারের যেকোনো সমস্যা দূর করে ও পাশাপাশি খাদ্যনালী, পরিপাক নালী ও অন্যান্য নালীর সমস্যা দূর করে। এটি ডায়রিয়ার সমস্যা রোধ করে ও পাশাপাশি কোষ্ঠকাঠিন্য ও বাতের সমস্যা দূর করে এবং বদ হজমের সমস্যাও দূর করে।

সবুজ আপেল আমাদের পেটের সুস্থতায় অনেক সাহায্য করে থাকে। তাছাড়া সবুজ আপেলের মধ্যে কোনো ক্ষতিকর কোলেস্টেরল নেই যা আমাদের দেহের জন্য খারাপ। তাই আপনি নিশ্চিন্তে ডায়েট করতে পারেন সবুজ আপেল খেয়ে।

এই আপেলের জৈব অ্যাসিড উপাদান আমাদের ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণে রাখে। তাই যদি আপনার বার বার ক্ষুধা লেগে থাকার সমস্যা থেকে থাকে তাহলে সবুজ আপেল খেয়ে ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবেন।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এমএস

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য