artk
২ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ১৭ আগস্ট ২০১৭, ৫:৩৬ অপরাহ্ন

শিরোনাম

ঢাবি শিক্ষিকার সঙ্গে অশালীন আচরণের অভিযোগ

ঢাবি সংবাদদাতা | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৪২৫ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ১৫ জুন ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১৫৪১ ঘণ্টা, বৃহস্পতিবার ১৫ জুন ২০১৭


ঢাবি শিক্ষিকার সঙ্গে অশালীন আচরণের অভিযোগ - শিক্ষাঙ্গন
ফাইল ফটো

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ও সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক তানিয়া রহমানের প্রতি অশালীন ও মারমুখী আচরণের অভিযোগ উঠেছে একই ইনস্টিটিউটের শিক্ষক অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদের বিরদ্ধে।

তিনি ওই শিক্ষিকার প্রতি ক্ষিপ্ত হয়ে অশালীন ভাষায় সম্বোধন করেছেন বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় বিচার চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক নাসরীন আহমাদের কাছে লিখিত অভিযোগপত্রও জমা দিয়েছেন তানিয়া রহমান।

অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করেন উপ উপাচার্য।

অভিযোগের বিষয়ে তানিয়া রহমান নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “ইনস্টিটিউটের সিঅ্যান্ডডি কমিটির সভা শেষে অধ্যাপক সামাদ আমাকে নানান ভয়-ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করেন। অশালীন ও অশ্রাব্য ভাষা ব্যবহার করেন। কোনো সংশ্লিষ্টতা ছাড়াই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সম্পর্কে তিনি অমার্জিত, অশালীন ও অশ্রাব্য শব্দ চয়নসহ বিভিন্ন ধরণের মিথ্যা অপবাদ সম্বলিত বাক্য উচ্চারণ করেন। তার এ ধরণের আচরণে আমি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত, মর্মাহত ও ক্ষুব্ধ।”

ঘটনাস্থলে উপস্থিত সিঅ্যান্ডডি কমিটির এক সদস্য জানান, গত ১২ জুন সোমবার ইনস্টিটিউটের পূর্ব নির্ধারিত সিঅ্যান্ডডি কমিটির সভা ছিল সকাল ১০টায়। অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ তখনও না পৌঁছায় তার জন্য বিশ মিনিট অপেক্ষা করে সভা শুরু হয়। সভা শেষ হওয়ার পরে অধ্যাপক সামাদ এসে হাজির হন এবং পরিচালক অধ্যাপক তানিয়া রহমানের প্রতি ক্ষিপ্ত হয়ে কারণ জানতে চান। এ সময় তিনি পরিচালকের প্রতি মারমুখী ভঙ্গিতে তেড়ে যান।

অধ্যাপক সামাদ পরিচালককে বলেন, ‘‘আরেফিনের (উপাচার্য) কথামতো তুমি এসব কর। তার কথামতো চল। তোমাকে দেখে নেব।’’    

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ বলেন, “এটা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। একটি চক্র সংঘবদ্ধভাবে আমার বিরুদ্ধে লেগেছে। আমি এ ঘটনার প্রতিবাদ জানাচ্ছি।”

নিউজবাংলাদেশ.কম/কে/এসএম/কেকে/এএইচকে

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য