artk
১০ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, শনিবার ২৪ জুন ২০১৭, ৮:০৩ অপরাহ্ন

শিরোনাম

খেলতে খেলতে বাংলা শেখা

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১২৪৮ ঘণ্টা, বুধবার ১৪ জুন ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ১২৫১ ঘণ্টা, বুধবার ১৪ জুন ২০১৭


খেলতে খেলতে বাংলা শেখা - শিক্ষাঙ্গন

বাংলাদেশে প্রথম থেকে তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত এখনও অনেক শিশু ঠিকমতো বাংলা পড়তে পারে না। পিছিয়ে পড়া এই শিশুদের একটি বিরাট অংশ প্রাথমিকের স্তর পার হওয়ার আগেই ঝড়ে পড়ছে। তবে নওগাঁর ছয়টি উপজেলার বেশকিছু বিদ্যালয়ে এ ধরনের পিছিয়ে পড়া শিশু শিক্ষার্থীদের বাংলা পঠন দক্ষতা বাড়াতে বিশেষ পদ্ধতিতে পাঠদান করা হচ্ছে। এতে শিশুরা খেলতে খেলতে বাংলা ভাষার ওপর দক্ষতা বাড়াতে পারছে এবং ঠিকমতো বাংলা পড়তে পারছে।

জেলার সাপাহার, পোরশা, ধামইরহাট, রাণীনগর, আত্রাই, মহাদেবপুর ও সদর উপজেলার ৬৬২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের বাংলা পঠন দক্ষতা বাড়াতে ৬৬০ টি ‘কমিউনিটি রিডিং ক্যাম্প’ স্থাপন করা হয়েছে। বাংলা পড়তে শেখানোর এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে উন্নয়ন সংস্থা আরডিআরএস। ‘রিড’ নামের এই প্রকল্পে কারিগরি সহযোগিতা করছে সেভ দ্য চিলড্রেন ও আর্থিক সহযোগিতা করছে আন্তর্জাতিক সংস্থা ইউএসএআইডি।

এই প্রকল্পের আওতায় ৬৬২টি বিদ্যালয়ের প্রথম থেকে তৃতীয় শ্রেণির শিশুরা কমিউনিটি রিডিং ক্যাম্পে পড়ার সুযোগ পাচ্ছে, যেখানে শিশুরা বিদ্যালয়ের বাইরে খেলতে খেলতে বাংলা ভাষার ওপর দক্ষতা বাড়াতে পারছে এবং ঠিকমতো বাংলা পড়তে পারছে। এই রিডিং ক্যাম্পগুলোতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুরা বিদ্যালয় পরবর্তী সময়ে কিংবা ছুটির দিনে তাদের পাঠভ্যাস বাড়ানোর জন্য একটি কার্যকর সুযোগ পায়। রিডিং ক্যাম্পগুলোতে বিভিন্ন রঙের শিক্ষা উপকরণ, একক ও দলগত অনুশীলন, গান, ছবি আঁকা, গল্প বলা এবং মজাদার শব্দ-খেলার মাধ্যমে শিশুরা খেলার ছলে বাংলা বর্ণ চিনতে পারছে এবং সঠিকভাবে বাংলা পড়তে পারছে।

সম্প্রতি সরেজমিনে বেশ কিছু বিদ্যালয় ঘুরে দেখা যায়, বিদ্যালয়ের বাইরে আমবাগান কিংবা বড় কোনো গাছের নিচে নির্ধারিত উন্মুক্ত স্থানে কমিউনিটি রিডিং ক্যাম্পে শিশুদের পড়ানো হচ্ছে। সেখানে শিশুদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। অভিভাবক ও শিক্ষকরা এই ক্যাম্পের ফলে শিশুদের পঠন দক্ষতার উন্নয়নে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

আশড়ন্দ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কমিউনিটি রিডিং ক্যাম্প পরিচালনাকারী শিক্ষক রেবেকা সুলাতানা বলেন, “আগে আমাদের শিক্ষার্থীরা সাবলিলভাবে বাংলা পড়তে পারত না। বর্ণ ঠিকমতো চিনতে পারত না। বর্তমানে কমিউনিটি রিডিং ক্যাম্পে বিশেষ পদ্ধতিতে পড়ানোর ফলে শিশুদের বাংলা পঠন দক্ষতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মাতৃভাষায় পড়ার দক্ষতা বৃদ্ধি পাওয়ায় অন্যান্য বিষয়েও তারা ভালো করছে।”

মঙ্গলবার নওগাঁর সাপাহার উপজেলার আশড়ন্দ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, জবই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বাখরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রকল্পের কার্যক্রমের ফলাফল দেখতে যান দাতা সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেন ও উন্নয়ন সংস্থা আরডিআরএসের কর্মকর্তারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সেভ দ্য চিলড্রেনের রিড প্রকল্পের চিফ অব পার্টি লিয়েনা গার্টস, রিড প্রোগ্রামের উপ-পরিচালক শাহীন ইসলাম, রিড প্রকল্প নওগাঁর উপ-ব্যবস্থাপক অ্যাডভোকেসি অ্যান্ড কমিউনিকেশন প্রশান্ত কুমার রায় আরডিআরএসের সাপাহার উপজেলা সমন্বয়কারী এলিজাবেথ মারান্ডি প্রমুখ। পরিদর্শনের সময় তারা সংশ্লিষ্ট শিক্ষক, অভিভাবক ও ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। 

রিড প্রোগ্রামের উপ-পরিচালক শাহীন ইসলাম বলেন, “রিড প্রকল্পের কার্যক্রমের শুরুতে আমরা বিভিন্ন কমিউনিটি রিডিং ক্যাম্পের জন্য নিযুক্ত কমিউনিটি লিটারেসি ভলান্টিয়ারদের প্রশিক্ষণ দিয়েছি। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এসব ভলান্টিয়ার বর্তমানে বিদ্যালয়ের বাইরে কমিউনিটি রিডিং ক্যাম্পে শিশু বান্ধব পরিবেশে খেলাচ্ছলে কিংবা বিভিন্ন আনন্দঘন পরিবেশে শিশুদের বাংলা পড়তে শেখাচ্ছে।

 

নিউজবাংলাদেশ.কম/এফএ

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য