artk
৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ৪:২৮ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

‘বাংলাদেশে বিনিয়োগ করুন, সব সহযোগিতা দেয়া হবে’

স্টাফ রিপোর্টার | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ২২২২ ঘণ্টা, সোমবার ২০ মার্চ ২০১৭ || সর্বশেষ সম্পাদনা: ২২৪৪ ঘণ্টা, সোমবার ২০ মার্চ ২০১৭


‘বাংলাদেশে বিনিয়োগ করুন, সব সহযোগিতা দেয়া হবে’ - অর্থনীতি

ঢাকা: সিঙ্গাপুরের বিনিয়োগকারীদের প্রতি বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, “বাংলাদেশে বিনিয়োগ করুন, সব সহযোগিতা দেয়া হবে।”

সোমবার সিঙ্গাপুরের এসবিএফ অডিটরিয়ামে ‘সাউথ এশিয়া মার্কেট ইনসাইটস সিরিজ: বিজনেস অপরচুনিটি ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেয়ার সময় এ কথা বলেন।

বাংলাদেশের সঙ্গে সিঙ্গাপুরের বাণিজ্য-বিনিয়োগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে সিঙ্গাপুরস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশন, সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশন এবং বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বার অফ সিঙ্গাপুর যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, “সিঙ্গাপুর ও বাংলাদেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির বিপুল সম্ভাবনা আছে। বাংলাদেশ বিনিয়োগের জন্য এখন বিশ্বের মধ্যে আকর্ষণীয় স্থান। বাংলাদেশ সরকার বিনিয়োগকারীদের জন্য বিশেষ সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে। বাংলাদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে উদারনীতি গ্রহন করা হয়েছে। এখানে শতভাগ বিনিয়োগ করার সুযোগ আছে, প্রয়োজনে বিনিয়োগকৃত অর্থ সম্পূর্ণ ফেরত নেয়া যাবে। এ বিষয়ে আইনদ্বারা বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষা করা হয়েছে। সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগ করলে বেশি লাভবান হবেন।”

মন্ত্রী বলেন, “বাংলাদেশের দেয়া আকর্ষণীয় সুযোগ গ্রহণ করতে পৃথিবীর অনেক দেশ বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে এগিয়ে এসেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোনে এসব বিনিয়োগ আসছে। সিঙ্গাপুরের বিনিয়োগকারীরা চাইলে এখান থেকে এক বা একাধিক ইকোনমিক জোন বরাদ্দ করা হবে। সরকার ফরেন ডাইরেক্ট ইনভেষ্টমেন্ট (এফডিআই) কে বিশেষ গুরুত্ব ও সহযোগিতা দিচ্ছে।”

এ সময় সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশন এবং বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বার অফ সিঙ্গাপুর একটি এমওইউ স্বাক্ষর করে। সেমিনারে সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়িক সংগঠন ও ব্যক্তি উদ্যোক্তাদের কাছে বাংলাদেশে বিনিয়োগের পরিবেশ, সরকার প্রদত্ত সুযোগ-সুবিধা ও সম্ভাবনা তুলে ধরা হয়। বাংলাদেশ অনেক পণ্য সিঙ্গাপুরে রপ্তানি করে। বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশি সিঙ্গাপুরে কাজ করছে। সেখানে বাংলাদেশের বিভিন্ন পণ্য রপ্তানির বিপুল সম্ভাবনা আছে। গত বছর সিঙ্গাপুরে ১৬৪ দশমিক ৭০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য রপ্তানি করা হয়েছে, একই সময়ে আমদানি করা হয়েছে ১৯৬৫ দশমিক ৬০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য। সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশে পণ্য রপ্তানি বৃদ্ধির মাধ্যমে বাণিজ্য ব্যবধান কমিয়ে আনা সম্ভব।

সেমিনারে সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান, সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশনের ভাই চেয়ারম্যান এবং সাউথ এশিয়া বিজনেস গ্রুপের চেয়ারম্যান গৌতম ব্যানার্জী, বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বার অফ সিঙ্গাপুরের প্রেসিডেন্ট মির্জা গোলাম সবুর বক্তব্য দেন।

নিউজবাংলাদেশ.কম/জেএস/এসডি

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য