artk
৩ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৭, ৪:১৫ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

মরণফাঁদ মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার

নিউজ ডেস্ক | নিউজবাংলাদেশ.কম
প্রকাশ: ১৫৩৯ ঘণ্টা, শুক্রবার ০৬ জানুয়ারি ২০১৭


মরণফাঁদ মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার - জাতীয়

ঢাকা: ফ্লাইওভারের ওপরে যাত্রী ওঠানামা আর স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি ফাঁক থাকা ‘এক্সপানশন জয়েন্টের’ কারণে মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে রাজধানীর মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার। প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। গত দুই বছরে নিহত হয়েছেন অন্তত ১০ জন মোটরসাইকেল আরোহী।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ফ্লাইওভারের সায়েদাবাদ প্রান্তে মোটরসাইকেলর ধাক্কায় গুরুতর আহত হন আফসানা আক্তার (২৫)। সেতুর ওপর বাস থেকে নেমে আরেক পাশে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনার শিকার হন তিনি।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আফসানার ভাই দিদার হোসেন জানান, তার বোনের মাথায় সেলাই দেয়া হয়েছে। রক্তপাত বন্ধ হয়েছে। কিন্তু তার পা ভেঙে গেছে। এখন দ্রুত অস্ত্রোপচারের প্রস্তুতি চলছে।

হানিফ ফ্লাইওভারে দুর্ঘটনার শিকার একজন রাজধানীর কাঁটাবনের মোটরসাইকেল মেকানিক মোহাম্মদ ইউনুস। তার ভাষ্য, ফ্লাইওভারের কয়েক জায়গায় সড়কের সমান্তরালে কংক্রিটের সংযোগস্থলগুলো মোড়ানো হয়েছে ইস্পাতের পাত দিয়ে। একে ‘এক্সপানশন জয়েন্ট’ বলা হচ্ছে। এ জোড়ায় স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি ফাঁক থাকায় সেখানে মোটরসাইকেলের চাকা আটকে দুর্ঘটনা ঘটে।

নিজের দুর্ঘটনার বর্ণনা দিয়ে তিনি বলেন, “আমি ওই জায়গা দিয়ে যাওয়ার সময় মনে হইল চাক্কাডা পিছলাইয়া গেল। আহত হইয়া কয়েক মাস বাসায় থাকলাম।”

এ ফ্লাইওভারে একইভাবে দুর্ঘটনায় পড়া কয়েকটি মোটরসাইকেল তিনি তার দোকানেই ঠিক করেছেন বলে জানান ইউনুস।

২০১৩ সালের অক্টোবরে চালু হওয়া এ ফ্লাইওভার দিয়ে গুলিস্তান থেকে শনির আখড়া ও পোস্তগোলা পর্যন্ত যাতায়াত করা যায়। চারলেনের সেতুতে উঠতে ছয়টি এবং বের হতে সাতটি পথ রয়েছে। সেতুর ওপর এসব পথে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে।

কয়েকজন যাত্রী ও চালক জানালেন, ফ্লাইওভারের যাত্রাবাড়ী, সায়েদাবাদ ও রাজধানী সুপার মার্কেটের প্রান্তগুলোতে বাস বা অন্য গাড়ি থামিয়ে যাত্রী ওঠানামা করা হয়। যাত্রাবাড়ীতে নিচের রাস্তা থেকে ওপরে পথচারী ওঠানামার জন্য সিঁড়িও সংযুক্ত করা হয়েছে। সেতুর ওপর দিয়ে লোকজনের চলাচলের কারণে চালক-পথচারী উভয়ই বিপদে পড়েন।

যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিসুর রহমান বলেন, “ফ্লাইওভারে মাঝেমধ্যেই দুর্ঘটনা ঘটছে। এর মধ্যে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনাও হচ্ছে। গাড়ির প্রচণ্ড গতি দুর্ঘটনার একটি কারণ।”

নিউজবাংলাদেশ.কম/একিউএফ

নিউজবাংলাদেশ.কমে প্রকাশিত যে কোনও প্রতিবেদন, ছবি, লেখা, রেখাচিত্র, ভিডিও-অডিও ক্লিপ অনুমতি ছাড়া অন্য কোনও মাধ্যমে প্রকাশ, প্রচার করা কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয়।
আপনার মন্তব্য
এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত