artk
৭ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শনিবার ২১ এপ্রিল ২০১৮, ৩:৫৯ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

সাদাসিধে কথা
দাবি, আন্দোলন এবং আন্দোলনের প্রক্রিয়া

এই পদ্ধতিটি নতুন নয়, এর আগে একবার প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা একই পদ্ধতিতে তাদের দাবি আদায় করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছেলেমেয়েদের ‘সাত খুন মাপ’, তারা যখন খুশি পুরো শহর, প্রয়োজন হলে পুরো দেশের মানুষকে জিম্মি করে ফেলতে পারে। তাদের কারও কাছে জবাবদিহি করতে হবে না।

ভালোবাসা এবং ভালোবাসা

মার্চ মাসের তিন তারিখ শনিবার বিকেলে আমি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছেলেমেয়েদের তৈরি করে আনা রোবটদের যুদ্ধ দেখছি। হঠাৎ করে মনে হলো আমার মাথায় বুঝি ‘আকাশ ভেঙে’ পড়েছে। বড় কোনও 

রাজনীতি নয়, চাই আনুগত্য

রাজনীতি নয়, চাই আনুগত্য

ইতিহাস বার বার প্রমাণ করেছে, রাজনৈতিক ভাষ্যে এক বার সামরিকীকরণ ঘটলে তাকে আগের জায়গায় ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া অত্যন্ত কঠিন। সেনা জেনারেলদের মধ্যে রাজনৈতিক উচ্চাভিলাষের ক্ষুধা জেগে উঠলে তাকে নিয়ন্ত্রণ করাও অত্যন্ত দুরূহ

অবিশ্বাস্য সুন্দর পৃথিবী

অবিশ্বাস্য সুন্দর পৃথিবী

অপারেশন থিয়েটারে শুয়ে আছি, মাথার ওপর উজ্জ্বল আলো। আমাকে ঘিরে ডাক্তার নার্স তার সাথে অনেক মানুষ, অনেকে আকুল হয়ে কাঁদছে। ডাক্তার নার্স সবাইকে বের করার চেষ্টা করতে করতে আমাকে বললেন, ‘আপনার ইনজুরিটা কতটুকু গুরুতর বোঝার জন্যে, 

অভিজিৎ হত্যাকাণ্ড: আমার দায়িত্ববোধ

অভিজিৎ হত্যাকাণ্ড: আমার দায়িত্ববোধ

দেখতে দেখতে তিনটি বছর চলে গেলো। এই তিন বছরে অনেক নির্ঘুম আতঙ্কের রাত কেটেছে আমার। যতো দিন বাঁচবো হয়তো সেই আতঙ্ক আমাকে তাড়া করে বেড়াবে। একটা ভয় আমাকে গ্রাস করতে চায় রাতের আঁধারে। কিসের ভয় আমি জানি না। এ কি মৃত্যুর ভয়। মৃত্যু নিয়ে কখনোই ভয় ছিল না। তাহলে...!

আর কত দিন এই ভাঙা রেকর্ড

আর কত দিন এই ভাঙা রেকর্ড

আগে প্রশ্ন ফাঁস হতো বলে এখন প্রশ্ন ফাঁস হওয়াটি মেনে নিতে হবে এটা নিশ্চয়ই একটা যুক্তি হতে পারে না। আগে এ দেশে রাজাকাররা গাড়িতে পতাকা উড়িয়ে ঘুরে বেড়াত বলে এখনো তারা গাড়িতে পতাকা উড়িয়ে ঘুরবে সেই কথাটি তো আমরা কখনো বলি না

একুশের অন্যতম পথিকৃৎ

একুশের অন্যতম পথিকৃৎ

একুশে ফেব্রুয়ারি সদ্য উদ্‌যাপিত হল। এই ঐতিহাসিক শুভক্ষণে সৈয়দ মুজতবা আলিকে না মনে করে পারি না। তিনি আমার চাচা, শুধুমাত্র সে কারণেই তো নয়। এমনকী সবাই তাঁকে যে কারণে জানে সে কারণেও নয়। তিনি মহৎ ঔপন্যাসিক, 

হা-হুতাশে লাভ নেই, দুর্বলতাগুলো চিহ্নিত করা যাক বরং

হা-হুতাশে লাভ নেই, দুর্বলতাগুলো চিহ্নিত করা যাক বরং

প্রতিযোগিতা আর পেশাদারিত্বের তাড়নায় নিজের ভাষার প্রতি কিছুটা অবহেলা বাঙালির রয়েছে। এ কথা অস্বীকার করে লাভ নেই। যেখানে সুযোগ রয়েছে, সেখানেই নিজের বাড়ির ছেলেটাকে বা মেয়েটাকে বাংলা মাধ্যমের বদলে ইংরেজি মাধ্যমে পড়াশোনা করানোর প্রবণতা রয়েছে

এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত