artk
১৮ বৈশাখ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সোমবার ০১ মে ২০১৭, ৮:২৩ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম

হাওরের ঊনমানুষ: যেমন আছে বাংলাদেশ

হাওরে আরও পানি ঢুকছে। ভেঙে গ্যাছে শেষ প্রতিরোধ শনির হাওরের বাঁধ। বাঁশ দিয়ে পানি ঠেকানোর চেষ্টায় হেরে গেছেন সমতলের কৃষক। লিখছি যখন, রাত ১.১০। এল ক্লাসিকো শেষ হলে কেউ বিছানায় প্রিয় মানুষের সাথে, কেউ কোলবালিশ নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাসে। আমারও আরও একটা কবিতা লেখা হয়ে গ্যাছে।

সাদাসিধে কথা
নির্বাচন আসছে?

এই রবিবার এপ্রিলের ১৬ তারিখ আমাদের নতুন মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরটি উদ্বোধন করা হলো। ১৯৭১ সালে আমাদের দেশে যে গণহত্যা হয়েছিল সে রকমটি পৃথিবীর আর কোথাও হয়েছিল কি না আমার জানা নেই।

পহেলা বৈশাখ বাঙালির সার্বজনীন উৎসব

পহেলা বৈশাখ বাঙালির সার্বজনীন উৎসব

আধুনিক নববর্ষ উদযাপনের খবর প্রথম পাওয়া যায় ১৯১৭ সালে। সে বছর পহেলা বৈশাখে হোম কীর্তন ও পূজার ব্যবস্থা করা হয়। উদ্দেশ্য ছিল প্রথম বিশ্বযুদ্ধে ব্রিটিশদের বিজয় কামনা

ভাইয়ের হাত ধরে আমার বৈশাখ

ভাইয়ের হাত ধরে আমার বৈশাখ

চৈত্রের শেষ রাতেই মার কাছে বড় দুই ভাইয়ের মেলায় যাবার বায়না। সেই বায়নায় যুক্ত হলাম আমিও। তখন আমি তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ি। বৈশাখী প্রথম দিনে সকালে তৈরি হয়ে দুই ভাই যাবার সময় ঘুম ভাঙে আমার

বৈশাখের হারিয়ে যাওয়া সেইসব স্মৃতি

বৈশাখের হারিয়ে যাওয়া সেইসব স্মৃতি

মধুর শৈশব ও কৈশোরকে ইতোমধ্যেই হারিয়েছি। এখন যৌবনকাল। জীবনের মধ্য গগন। এ জীবন ব্যক্তিগত স্বাধীনতা উপহার দিয়েছে। কিন্তু কেড়ে নিয়েছে অল্পতেই বিস্মিত হওয়ার অপার আনন্দকে; কেড়ে নিয়েছে বৈশাখের দুরন্তপনা

মায়ের দেয়া টাকা মেলায় গিয়ে দ্বিগুণ

শৈশবের বৈশাখ
মায়ের দেয়া টাকা মেলায় গিয়ে দ্বিগুণ

‘মা এবার মেলায় যাব’– কথাটি শুনে খুব একটা পাত্তা দিল না মা। কিছুটা ভ্রু কুঁচকে বলল, ‘মেলায় যাওয়ার দরকার নাই। অনেক গ্যাঞ্জাম হয়। আর মেলাও বসে অনেকদূর। সুতরাং যাওয়া যাবে না।’

সেই বৈশাখ, এই বৈশাখ

সেই বৈশাখ, এই বৈশাখ

কুমিল্লায় কেটেছে আমার ছেলেবেলা। বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সাহিত্য, সাংস্কৃতিক ও সামাজিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে ধীরে ধীরে যুক্ত হতে লাগলাম। পরে দেখলাম- বীরচন্দ্র গণ পাঠাগার ও নগর মিলনায়তন মাঠে (কুমিল্লা টাউন হল মাঠ) বৈশাখী মেলার বড় আয়োজন। কুমিল্লা সাংস্কৃতিক জোট ধর্ম সাগর পাড় থেকে বের করতো মঙ্গল শোভাযাত্রা

বকেয়ার ২ টাকা ও হালখাতা মিস

বকেয়ার ২ টাকা ও হালখাতা মিস

আমাদের ছোটবেলায় পহেলা বৈশাখের এত সাজসাজ অবস্থা ছিল না। বছরের শুরুতে দোকানিরা হিসাবের লাল বাঁধাইকরা খাতা নিয়ে বসতেন। কার কত টাকা বাঁকি তার একটা লিস্ট তৈরি করতেন। এর পর ‘শুভ হালখাতা’ ছাপানো খাম ও একটা চিঠিতে তার বকেয়ার পরিমাণ উল্লেখ করে চিঠি পাঠাতো

এই বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত